বরিশালের হিজলায় গলায় ফাঁস দিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা ॥ স্বামী গ্রেফতার

বরিশালের হিজলা উপজেলার বড়জালিয়া ইউনিয়নের পুরাতন হিজলায় স্বামীর সাথে কথা কাটা-কাটির কারনে গৃহবধূ রহিমা বেগম গলায় ফাস দিয়ে আত্মহত্যা করেন। বাড়িতে ঢোকার রাস্তায় বাস রাখাকে কেন্দ্র করে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে কথা কাটা-কাটির সৃষ্টি হয়। এর এক পর্যায়ে রবিবার বিকেল ৫টার দিকে রহিমা ঘরের দরজা বন্ধ করে আড়ার সাথে গলায় ফাঁস দেয়। পরে রহিমার স্বামী ঘরের দরজা বন্ধ দেখে সন্দেহ হলে প্রতিবেশিদের সাথে নিয়ে ঘরের দরজা ভেঙ্গে রহিমাকে আড়ার সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান। তাকে হিজলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষনা করেন। নিহতের ছোট বোন ফাহিমা জানান, রহিমার স্বামী কবির ও তার পরিবার প্রায়ই রহিমাকে শারিরীক ও মানষিক নির্যাতন করতেন। আর এবার তিনি নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে আত্মহত্যা করেছেন। পরবর্তিতে হিজলা থানা পুলিশ গিয়ে রহিমার মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করেন। হিজলা থানা পুলিশ রহিমার স্বামী করিরকে গ্রেফতার করেছে।
হিজলা থানার অফিসার ইনচার্জ অসিম কুমার সিকদার জানান, এই বিষয়ে হিজলা থানায় স্ত্রীকে আত্মহত্যার প্ররোচনায় স্বামী কবিরের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামী কবির বর্তমানে পুলিশ হেফাজতে আছে।