বরিশালে ইসলামী ছাত্রী সংস্থার ২২ সদস্য আটক

বরিশাল টুডে ॥ বরিশালের মুলাদী গাছুয়া ইউনিয়নর হোসনাবাদ গ্রাম থেকে জামায়াতে ইসলামীর অঙ্গ সংগঠন ইসলামী ছাত্রী সংস্থার ২২ সদস্যকে পুলিশ আটক করেছে। বুধবার দুপুড় দেড় টার দিকে গাছুয়া ইউনিয়ন জামায়াতের সেক্রেটারী মাষ্টার আতাহারউদ্দিনের পইকা হোসনাবাদ গ্রামের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হচ্ছেন, ছাত্রী সংস্থার কর্মী মারজানা, রেনু, স্বর্ণালী হামিদা, রাফসানা, রোকেয়া, রাজিয়া, আফরোজা, সুমি, করুনা, রুনা, আফসানা, নিরু, আফিয়া, নুপুর,জাহানারা, সিমু, এলিজা, কানিজ, তানিয়া, তাহমিনা, সুবর্না ও আয়শা। স্বর্ণালী ছাড়া আটককৃত সকলে  গাছুয়া ইউনিয়নের বাসিন্দা বলে জানায় পুলিশ। ছাত্রী সংস্থার কর্মীদের গ্রেফতারের খবর পেয়ে গৌরনদী সার্কেল এএসপি মোঃ কামারুজ্জামান মুলাদী থানা পরিদর্শন করেছেন।

  পুলিশ সুপার মো. এহসানউল¬াহ জানান, ঈদ পূর্নমিলণী অনুষ্ঠান করার জন্য হোসনাবাদ গ্রামে জামায়াতের সেক্রেটারী আতাহারউদ্দিন এর বাড়ীতে ইসলামী ছাত্রী সংস্থার নেতাকর্মীরা জড়ো হয়। সেখান থেকে ২২ জনকে পুলিশ আটক করে। তাদের কাছ থেকে মওদুদী, গোলাম আযম ও নিজামীর লেখা বই উদ্ধার করা হয়েছে। এ ছাড়া তাদের কাছ থেকে জামায়াতে ইসলামীর রাজনীতির আদর্শের বিভিন্ন পুস্তিকা এবং ‘রক্তাক্ত ২৮ অক্টোবর, পাশবিক নির্যাতনের প্রামান্য চিত্র’ শীর্ষক একটি সিডি উদ্ধার করা হয়েছে। আটককৃত স্কুল ও কলেজের ছাত্রীদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। মুলাদী থানার ওসি মোঃ শাহ আলম জানিয়েছেন, নৈরাজ্যমূলক  কর্মসূচী  গ্রহনের জন্য ছাত্রী সংস্থার একদল কর্মী জামায়াত নেতার বাড়িতে মিলিত হয়েছিল।

পুলিশ খবর পেয়ে সেখানে অভিযান চালিয়ে ছাত্রী সংস্থার ২২ কর্মীকে গ্রেফতার করে। ইউনিয়ন জামায়াতের সেক্রেটারী মাষ্টার আতাহারউদ্দিন ও তার পরিবারের সদস্যরা পুলিশী অভিযানের আগেই পালিয়ে যায়। তবে গ্রেফতারকৃতরা দাবী করেছেন  নৈরাজ্যমূলক  কর্মসূচী  গ্রহনের জন্য নয়, বরং  তারা সেখানে ঈদ পূনর্মিলনী অনুষ্ঠান করার জন্য মিলিত হয়েছিলেন।