বরিশালে ঈদের ছুটিতে সরকারী জমিতে অবৈধ ভবন নির্মান

বরিশাল টুডে ॥ ঈদের লম্বা ছুটিতে নগরীর গুরুত্বপূর্ন এলাকার প্রায় দু’ কোটি টাকার সম্পত্তি দখল করে স্থাপন তৈরী করে ফেলেছে একটি চিহিৃত ভূমিদস্যু চক্র। চক বাজার এলাকার সরকারী ঐ জমিতে রমজাতে মাসে বিএনপি দলীয় সাবেক ওয়ার্ড কাউন্সিলর ভবন নির্মান শুরু করলে জেলা প্রশাসন তা সিলগালা করে দেয়। একই সাথে কোন স্থাপনা নির্মান না করার জন্য নির্দেশ দেয় জেলা প্রশাসন।

ঐ নির্দেশ উপেক্ষা করে শবে কদরের দিন সরকারী বন্ধ থাকায় ভবন নির্মানের কাজ পুনরায় শুরু করেন ঐ সাবেক কাউন্সিলর। চক বাজার ও কাটপট্টি রোডের মুখে মূল্যবান ঐ জমির সামনে চট টানিয়ে দিয়ে গোপনে দিন – রাত প্রায় অর্ধশত শ্রমিক নিয়ে ভবন নির্মান করা হয় বলে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানান। তারা নাম প্রকাশ না করার শর্তে ইত্তেফাককে জানান বিষয়টি জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাদের জানিয়ে কোন লাভ হয়নি।

প্রশাসনের নিন্ম পর্যায়ের কতিপয় কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে ম্যানেজ করেই রাতারাতি ভবন নির্মান করা হয়েছে। ঈদের বন্ধের মাঝে সে ভবন এখন মাথা উচু করে দাড়িয়ে আছে। যদিও ভবনের সামনের দিকে এখনো চটের বেড়া দিয়ে ডাকা রয়েছে। জেলা প্রশাসনের সিলগালা করা স্থানটিও চটের বেড়ার ভিতরে আটকে দেওয়া হয়েছে। ফলে বাইর থেকে দেখে বোঝার উপায় নেই।

এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক শহীদুল আলমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান- সিল গালা করে দেওয়ার পর ঐ জমি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( রাজস্ব) কাউকে লিজ দিয়েছেন কি না তা তার জানা নেই। তবে রবিবার অফিস খুললে তিনি বিস্তারিত জেনে বলতে পারবেন। এদিকে চক বাজার ও কাটপট্টি রোডের ব্যবসায়ীরা জানান- সরকারী ছুটির এ ফাকেই ভবন নির্মানের কাজ দ্রুত গতিতে চালিয়ে যাচ্ছেন ঐ ভূমিদস্যু। ভবন নির্মানের জন্য সিটি কর্পোরেশন থেকে নকশা অনুমোদনের নিয়ম থাকলেও তা মানেনি প্রভাবশালী ঐ বিএনপি নেতা।

প্রসঙ্গত সাবেক ঐ কাউন্সিলের বিরুদ্ধে কাটপট্টি রোডের সংখ্যালঘু সম্প্রদায় থেকে শুরু করে বিভিন্ন ব্যবসায়ীরা জমি জালজালিয়াতি সহ নানান উপায় দখল করে নেওয়ার অভিযোগ রয়েছে।