বরিশালে কলেজ ছাত্রী অপহরনের ঘটনায় মামলা

কলেজ ছাত্রী অপহরনের অভিযোগে বরিশাল জেলা ছাত্রলীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এবং বরিশাল বিশ^বিদ্যালয় কর্মচারী দুই সন্তানের জনক বণি আমিনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে। ছাত্রীকে নগরী থেকে অপহরন করে কুয়াকাটায় একটি আবাসিক হোটেলে দুইদিন রেখে ধর্ষন করনা হয়েছে বলে জানা গেছে। এসব অভিযোগ জানিয়ে ছাত্রীর মা রবিবার মহানগর পুলিশের এয়ারপোর্ট থানায় মামলা দায়ের করেছেন। এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে ছাত্রলীগ থেকে বহিস্কারের জন্য কেন্দ্রে সুপারিশ পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক।
বনি আমিন নগরীর কাশিপুর গণপাড়া এলাকার বাসিন্দা জাহাঙ্গীর হোসেনের ছেলে। ছাত্রলীগের রাজনীতির পাশাপাশি তিনি বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মচারী (ইস্যু ক্লার্র্ক) এবং বিশ্ববিদ্যালয় কর্মচারী সমিতির সভাপতি। এয়ারপোর্ট থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ জাহিদ বিন আলম জানান, রবিবার রাতে এ অভিযোগ পেয়ে ছাত্রীকে উদ্ধারে বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালানো হয়। সোমবার রাতে ঝালকাঠি শহরে ঐ ছাত্রীর এক আত্মীয়র বাড়ি থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়েছে। অভিযুক্ত বনি আমিনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। ওসি জাহিদ বিন আলম জানান, ধর্ষণ সংক্রান্ত পরীক্ষার জন্য ছাত্রীকে শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। রিপোর্ট পেলে ধর্ষণের শিকার হয়েছে কি-না তা নিশ্চিতভাবে বলা যাবে।