বরিশালে গলায় গুলি চালিয়ে পুলিশ কনস্টেবলের আত্মহত্যা

বরিশালে চিঠি লিখে নিজের গলায় গুলি চালিয়ে হৃদয় চন্দ্র দাস (২১) নামে এক পুলিশ কনস্টেবল আত্মহত্যা করেছে বলে জানা গেছে। শুক্রবার বেলা ১টার দিকে বরিশাল জেলা পুলিশ লাইন্সের নবনির্মিত ৬ তলা ব্যারাক হাউসের ছাদে তার মরদেহ পাওয়া যায়। নিহত হৃদয় চন্দ্র দাস ভোলা জেলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার কুঞ্জেরহাট চকদুশ এলাকার সুকন্ঠ চন্দ্র সাহা’র ছেলে। সে বরিশাল জেলা পুলিশের কনস্টেবল হিসেবে ১বছর ৩মাস পূর্বে নিয়োগপ্রাপ্ত হন। বিষয়টি নিশ্চিত করে বরিশাল জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ নাইমুল হক সাংবাদিকদের জানান, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত হৃদয় এর ব্যারাক হাউসের সামনে সেন্ট্রি ডিউটিরত ছিলো। এরপর তার মরদেহ ব্যারাক হাউসের ছাদে পাওয়া যায়। তিনি জানান, হৃদয়ের পকেট থেকে দুটি চিঠি পাওয়া গেছে। বাবা ও ছোট ভাইয়ের কাছে লেখা চিঠি দুটিতে তিনি তার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ি নয় বলে উল্লেখ করেছেন। এছাড়াও তার পকেটে থাকা মানিব্যাগ থেকে একটি মেয়ের ছবি পাওয়া গেছে। বিভিন্ন সূত্রে পাওয়া তথ্যানুযায়ী ধারণা করা হচ্ছে প্রেমের সূত্র ধরেই এই আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। তারপরও বিষয়টি আমরা তদন্ত করে দেখছি। তার অস্ত্রসহ ছাদে যাওয়ার বিষয়ে যদি কোনো পুলিশ সদস্যর দায়িত্বে অবহেলা থাকে তাহলে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এদিকে বরিশাল মেট্রোপলিটন কোতয়ালি মডেল থানা পুলিশের সিনিয়র সহকারি কমিশনার মোঃ রাসেল জানান, মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এছাড়াও এই ঘটনায় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।