বরিশালে টেন্ডারবাবাজি নিয়ে যুবলীগ নেতাকে পিটিয়েছে বিএম কলেজ ছাত্রলীগ

বরিশালে টেন্ডার বাগিয়ে নেয়াকে কেন্দ্র করে যুবলীগ নেতাকে পিটিয়ে জখম করেছে বিএম কলেজ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। মঙ্গলবার দুপুর দুইটার দিকে নগরীর জর্ডন রোড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

হামলার শিকার সোহেব আলম সেজানকে (৩০) উদ্ধার করে বরিশাল শেরে-ই বাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় (শেবাচিম) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুপুর দুইটার দিকে সেজান এবং বিএম কলেজ ছাত্রলীগের মঈন তুষার গ্র“পের মধ্যে টেন্ডার ভাগাভাগি নিয়ে বাকবিতন্ডার ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে তুষার গ্রুপের নেতাকর্মীরা সেজানের ওপর চড়াও হয়। এতে সেজান গ্র“প বিক্ষুদ্ব হয়ে উঠলে তাদের ওপর হামলা চালায় তুষার গ্র“পের জুবায়ের আলম, নুর আল আহাদ সাঈদী, ফয়সাল আহম্মেদ মুন্নাসহ ৭/৮জন। এসময় সংসদ সদস্য শওকত হোসেন হিরনের ভাগ্নে পরিচয়দানকারি সেজানকে পিটিয়ে জখম করা হয়।  

 খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বরিশাল ও ঝালকাঠিতে বিদ্যালয় ভবন নির্মাণের জন্য ১১টি গ্রুপের ৬কোটি ৭১ লাখ টাকার দরপত্র আহ্বান করে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর। এর মধ্যে একটি গ্রুপের ৬১লাখ টাকার কাজ নাহিদ এন্টারপ্রাইজের নামে বাগিয়ে নেয় তুষার গ্রুপ। এনিয়ে তুষার এবং সেজান গ্রুপের সাথে দ্বন্দ্বের সূত্রপাত হয়।

হামলার শিকার সেজান জানান,  টেন্ডারবাজিতে বাধা দেয়ায় তুষার তার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে তার ওপর হামলা চালিয়েছে।
এ অভিযোগ অস্বীকার করে তুষার গ্রুপের নুর আল সাঈদী বলেন, বেলা ১২টার দিকে বিএম কলেজ ছাত্রলীগের কর্মী সোহেল, রাজু ও রিমন সিএস এর জন্য ৯৮হাজার টাকা জমা দিতে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের কার্যালয়ে যাওয়ার পথে সেজান তাদের বাধা দেয় এবং টাকা ছিনিয়ে নেয়। এসময় তাদের ডাকচিৎকারে স্থানীয়রা সেজানকে আটক করে গণধোলাই দিয়েছে।