বরিশালে নদী ভাঙন রোধে ফেলা জিও ব্যাগ থেকে বালু চুরি

কীর্তনখোলা নদীর ভাঙ্গনের হাত থেকে রক্ষায় ফেলা জিও ব্যাগ থেকে বালু সরিয়ে নিচ্ছে একটি চক্র। ঐ বালু পরবর্তীতে অন্যত্র বিক্রি করারও অভিযোগ রয়েছে ঐ চক্রটির বিরুদ্ধে। জানা গেছে, বরিশাল নগরীর বেলতলার ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট থেকে চরবাড়িয়ার প্রায় শেষ সীমানা পর্যন্ত সাড়ে ৪ কিলোমিটার এলাকায় নদীর ভাঙ্গন প্রতিরোধে কাজ করছে পানি উন্নয়ন বোর্ড। যে কাজের অংশ হিসেবে বেলতলা খেয়াঘাট সংলগ্ন নদীর তীরবর্তী স্থানে ফেলা হয়েছে জিও ব্যাগ। কিন্তু সম্প্রতি সময়ে স্থানীয় কিছু লোক সেইসব জিও ব্যাগ থেকে নানান অযুহাতে বালু বের করে তা আবার অন্য বস্তাতে করে নিয়ে যাচ্ছে বিক্রির উদ্দেশ্যে। স্থানীয়রা জানান, বৃহষ্পতিবার বেলতলা খেয়াঘাট সংলগ্ন এলাকায় পারভেজ নামের এক ব্যক্তি জিও ব্যাগ থেকে বালু তুলে নিতে দেখা গেছে। যে সব বালু তারা সিমেন্টের বস্তায় ভরে নিয়ে যাচ্ছেন। পারভেজ স্থানীয়ভাবে বালু ব্যবসার সাথে জড়িত দাবী স্থানীয়দের। তবে পারভেজের দাবি সে তার খোয়া যাওয়া মোবাইল ফোন খুজতেই জিও ব্যাগ থেকে বালু বের করেছেন। এদিকে পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, জিও ব্যাগগুলো বিশেষভাবে যেমন তৈরি, তেমনি এগুলোতে বালু ভরে বিশেষভাবে মেশিনের সাহায্যে সেলাই করে মুখ আটকে দেয়া হয়। যা পানির ¯্রােত এবং ঢেউয়ে খুলে যাওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই। কিন্তু সেই সেলাই খুলে দিয়ে আবার মেশিন ছাড়া সেলাই করলে ভেতরের সকল বালু পানির সাথে বের হয়ে যাবে। এতে তীর রক্ষা কার্যক্রম হুমকির মুখে পড়বে। বরিশাল পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী উজ্জ্বল কুমার সেন সাংবাদিকদের জানান, আমরা বিষয়টি সম্পর্কে অবগত নই। যদি এমন কিছু হয়ে থাকে অবশ্যই এই ব্যাপারে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।