বরিশালে নানা আয়োজনে কমিউনিটি পুলিশিং ডে উদযাপন

বরিশালে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে শনিবার বরিশালে কমিউনিটি পুলিশিং ডে উদযাপিত হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে সকাল সাড়ে ৯টায় নগরীর সার্কিট হাউজ চত্ত্বরে বেলুন-ফেস্টুন উড়িয়ে কমিউনিটি পুলিশিং ডে কর্মসূচীর উদ্ধোধন করেন অতিথিবৃন্দ। পরে সেখান থেকে থেকে মেট্রোপলিটন পুলিশের উদ্যোগের একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হয়। র‌্যালীটি প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে বঙ্গবন্ধু উদ্যানে গিয়ে শেষ হয়।
পরে বঙ্গবন্ধু উদ্যানে এক কমিউনিটি সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি পার্বত্য শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন পরীবিক্ষন কমিটির আহ্বায়ক (মন্ত্রী মর্যদা) আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ এমপি। প্রধান বক্তা ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ মহাপরিদর্শক (এসবি) মীর শহীদুল ইসলাম। বিএমপি কমিশনার মোঃ শাহাবুদ্দিন খানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক শামীম এমপি, সিটি মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ, র‌্যাব-৮ কমান্ডিং অফিসার আতিকা ইসলাম ও জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমান।
সমাবেশে অতিথিরা বলেন, জনতার সহায়তায় দেশের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ রাখা সম্ভব। এ কারনে জনগনকে সম্পৃক্ত করা হয়েছে কমিউনিটি পুলিশিংয়ে। পুলিশ-জনতার যৌথ প্রচেস্টায় মাদকের বিস্তার রোধ এবং অপরাধ প্রবনতা নিয়ন্ত্রন করা সম্ভব। সন্ত্রাসী-অপরাধী, মাদক ব্যবসায়ীদের দিন শেষ। জনগন এবং পুলিশ অংশিদারীত্বের ভিত্তিতে অপরাধ নির্মুল করে সোনার বাংলা গড়ে তুলবে। দেশ সমৃদ্ধির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে, পুলিশ এই সমৃদ্ধির অংশিদার হতে চায়।
সেই আগের পুলিশ এখন নেই। বিভিন্নভাবে তারা অনেক আধুনিক এবং জনবান্ধব হয়েছে। পুলিশ জনগন, জনগনই পুলিশ শ্লোগান নিয়ে তারা সামনে আগাচ্ছে। কমিউনিটি পুলিশিংয়ের মাধ্যমে জনগনের সাথে পুলিশের সম্পর্কের উন্নতি হবে। এর মাধ্যমে পুলিশ সঠিক তথ্য পাবে এবং আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রন সহজ সাধ্য হবে।
এদিকে র‌্যালী এবং সমাবেশ ছাড়াও কমিউনিটি পুলিশিং ডে উদযাপন উপলক্ষ্যে স্বেচ্ছায় রক্তদান, প্রীতি ফুটবল ও কাবাডি এবং সন্ধ্যায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ।