বিলবোর্ড সরিয়ে ফেলায় বিসিসি’র বিজ্ঞাপন কর্মকর্তা লাঞ্ছিত

বরিশাল টুডে ॥ শুভেচ্ছা বিলবোর্ড সরিয়ে ফেলায় সিটি কর্পোরেশনের বিজ্ঞাপন কর্মকর্তাকে লাঞ্ছিত করেছে ছাত্রদল নেতাকর্মিরা। বৃহস্পতিবার শতাধিক ছাত্রদল, যুবদল নেতাকর্মী নগর ভবনের বিজ্ঞাপন শাখায় প্রবেশ করে নগরীর বিভিন্ন স্থানে টানিয়ে রাখা নবনির্বাচিত মেয়র আহসান হাবিব কামালের ব্যানার নামিয়ে ফেলার কারন জানতে চায় বিজ্ঞাপন কর্মকর্তা আজিজুর রহমান শাহিনের কাছে। এ নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে আজিজুর রহমান শাহিনকে লাঞ্ছিত করে ছাত্রদল নেতাকর্মীরা।

বিসিসি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিখিল চন্দ্র দাস জানান, নগরীতেথাকা অবৈধ ব্যানার, বিলবোর্ড ও ফেস্টুন নিজ দায়িত্বে নামিয়ে ফেলার জন্য কয়েক দিন যাবত বিসিসি’র পক্ষ থেকে মাইকিং করা হয়।  এর জন্য ২০ আগষ্ট পর্যন্ত সময় বেধে  দেয়া হয়। বেধে দেয়া সময়ের মধ্যে যে সব ব্যানার, বিলবোর্ড, ফেস্টুন নামানো হয়নি ২০ আগষ্ট রাত থেকে তা অপসারন শুরু করে বিসিসি কর্মীরা। এ নিয়ে বিজ্ঞাপন কর্মকর্তার সাথে ছাত্রদল নেতাকর্মিদের ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। লাঞ্ছিত হওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে বিসিসি’র বিজ্ঞাপন কর্মকর্তা আজিজুর রহমান শাহিন বলেন, এ ব্যাপারে উর্ধ্বতন  কর্তৃপক্ষ যে সিদ্ধান্ত দিবেন তা-ই মেনে নেয়া হবে।

মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক ইয়াসির আরাফাত মিন্টু জানান, নবনির্বাচিত মেয়র ও এমপি মহাদয়কে শুভেচ্ছা জানিয়ে নগরীতে ব্যানার, বিলবোর্ড, ফেস্টুন টানিয়েছে সাধারন নগরবাসী। তা খুলে ফেলার অধিকার সিটি কর্পোরেশনের নেই। তাই সাধারন নগরবাসী এর প্রতিবাদ করেছে।

সিটি কর্পোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র আলতাফ মাহমুদসিকদার বলেন, সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তা বা কর্মচারীকে লাঞ্ছিত করা মানে মেয়রকে লাঞ্ছিত করা, মেয়রের চেয়ারকে লাঞ্ছিত করা। তবে বিজ্ঞাপন কর্মকর্তাকে লাঞ্চিত করার কোন অভিযোগ তিনি পাননি বলে জানান।