মাদকের টাকা যোগাতে হত্যা ।

নিজস্ব প্রতিবেদক

বরিশালের বাকেরগঞ্জে মো. ফয়সাল আহমেদ প্রিন্স (২৬) নামে এক ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেল চালককে পিটিয়ে হত্যা করে মোটর সাইকেল ও মোবাইল ছিনতাই করেছে মাদকাশক্ত টিউবওয়েল শ্রমিকরা।

এ ঘটনায় ৯ টিউবওয়েল শ্রমিককে আটক করেছে স্থানীয় থানা পুলিশ। ছিনতাই হওয়া মোটর সাইকেল ও মোবাইল উদ্ধার করা হয়েছে। নেশার টাকার জন্য প্রিন্সকে হত্যা করে মোটরসাইকেল ছিনতাই’র কথা স্বীকার করেছে হত্যাকারীরা।

মঙ্গলবার দিবাগত রাত ৪টার দিকে বাকেরগঞ্জ উপজেলার গারুরিয়া ইউনিয়নের খরাবাদ গ্রামের একটি দোকানের পেছন থেকে ওই যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত প্রিন্স একই গ্রামের নুর ইসলাম হাওলাদারের ছেলে।

তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে বাকেরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. ফয়েজ আহমেদ বলেন, প্রিন্স এর গ্রামের পাশের বাড়িতে টিউবওয়েল বসানোর কাজ চলছে। প্রিন্স বাড়ি ফেরার পথে রাত সাড়ে ১০টার দিকে টিউবওয়েল শ্রমিকরা তার উপর হামলা করে মোটর সাইকেল ও মোবাইল ছিনতাই করে। তারা প্রিন্সকে হত্যা করে একটি দোকানের পেছনে ফেলে রাখে। খবর পেয়ে রাত ৪টার দিকে পুলিশ লাশ উদ্ধারে যায়।

তিনি বলেন, টিবওয়েল শ্রমিকরা প্রিন্সকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। ভাড়ি কিছু দিয়ে তার মাথায় আঘাত করা হয়েছে। এতে মাথা থেতলে গেছে। এছাড়াও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত রয়েছে।

বাকেরগঞ্জ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) আ.স.ম মাসুদুজ্জামান বলেন, এই ঘটনায় প্রকৃত দোষি ৪ জন। এজন্য ওই চারজনকে গ্রেপ্তার দেখানো হচ্ছে। বাকিদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ছেড়ে দেয়া হবে। তাছাড়া হত্যাকারী চারজনের মধ্যে রাসেল নামের একজনের কাছ থেকে প্রিন্স এর মোবাইল উদ্ধার করা হয়েছে। আর মোটরসাইকেলটি যেখানে টিউবওয়েল স্থাপনের কাজ চলছে সেখান থেকে উদ্ধার হয়েছে।

তিনি বলেন, গ্রেপ্তারকৃত চারজন হত্যার দায় স্বীকার করেছে। তারা নেশার টাকার যোগান দিতে প্রিন্সকে হত্যা করে তার মোবাইল ও মোটরসাইকেল ছিনতাই করে বলে স্বীকার করেছে। তবে বিষয়টি আরো ভালোভাবে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। পাশাপাশি এই ঘটনায় হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে।