মেঘনায় ডুবে যাওয়ার ট্যাংকার থেকে তেল অপসারণ কাজ শুরু

বরিশাল টু-ডে ॥ প্রায় ৯ মাস পূর্বে বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জের উলানিয়া এলাকার মেঘনা নদীতে সাড়ে ৭ লাখ লিটার পেট্রোল ও ডিজেল নিয়ে ডুবে যাওয়া ট্যাংকার এম.টি মেহেরজান থেকে বুধবার তেল অপসারণ কাজ শুরু করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে ট্যাকারটির ট্যাংকারটির অর্ধাংশ উদ্ধার করা সম্ভব হয়।  আগামী দু’একদিনের মধ্যে পুরো জাহাজটির উদ্ধারের কাজ শেষ করা হবে বলে জানিয়েছেন মেহেন্দিগঞ্জ থানা পুলিশ। মেহেন্দীগঞ্জ থানার এস.আই সাহেব আলী জানান, এম.টি মেহেরজানের মালিকের ব্যক্তিগত উদ্যোগে চট্টগ্রাম থেকে তিনটি উদ্ধারকারী জাহাজ এনে উদ্ধার কাজ শুরু করা হয়। টানা তিন মাস আপ্রান চেষ্টার পর অবশেষে মঙ্গলবার রাতে জাহাজটি উদ্ধার করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, ডুবে যাওয়ার স্থান থেকে প্রায় চার কিলোমিটার দূরত্বে মেঘনা নদীর বালিয়া গ্রামের একটি চরে জাহাজটি রাখা হয়েছে। এস.আই আরো জানান, বুধবার দুপুর থেকে জাহাজের ট্যাংকারের ভেতরে থাকা তেল অপসারণের কাজ শুরু করা হয়।
উল্লেখ্য, গত বছরের ২৫ জুলাই গভীর রাতে এম.ভি ফজলুল হক নামের মালবাহী জাহাজের ধাক্কায় সাড়ে সাত লাখ লিটার তেল নিয়ে মেঘনা নদীতে ডুবে যায় এম.টি মেহেরজান। এরপর বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান ড. সামসুদ্দোহা খন্দকারের নেতৃত্বে উদ্ধারকারী জাহাজ হামজা ও রুস্তুম, নৌ-বাহিনী, কোস্টগার্ড, পুলিশ, ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা দীর্ঘদিন চেষ্টা চালিয়েও ডুবে যাওয়া ট্যাংকারটি উদ্ধার করতে পারেননি।