আগৈলঝাড়ায় ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে দারোগার বিরুদ্ধে অবৈধ অর্থ আদায়ের অভিযোগ

অপূর্ব লাল সরকার, আগৈলঝাড়া (বরিশাল) থেকে ।। বরিশালের আগৈলঝাড়ায় ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে আসামীর বাড়িতে গিয়ে তার বৃদ্ধা মাকে লাঞ্ছিত করে অবৈধভাবে অর্থ আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার গৈলা গ্রামের যুবদল নেতা ও বিএনপি’র অবরোধ চলাকালীন গাড়ি পোড়ানো মামলার আসামী সালমান হাসান রিপনের বাড়িতে।
সালমান হাসান রিপন ফোনে অভিযোগ কওে জানায়, রোববার রাতে তাকে খুঁজতে বাড়িতে যায় মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই নজরুল ইসলাম। এসময় রিপনকে না পেয়ে তার বৃদ্ধা মা’কে নজরুল লাঞ্ছিত করলে তিনি মাটিকে পরে যান। এসময় পরিবারের অন্য সদস্যরা মাকে না মারার জন্য তাকে অনুনয় বিনয় করেন। একপর্যায়ে তার বড়ভাই জামালকে ধরে নিয়ে গাড়ি পোড়ানো মামলায় ক্রসফায়ার দেয়ার হুমকি দেন নজরুল। ক্রসফায়ার ঠেকাতে পরে মোটা অঙ্কের টাকা দাবি করলে একপর্যায়ে দারোগা নজরুলকে টাকা দিয়ে সন্তুষ্ট করা হয়।
রিপন অভিযোগে আরও জানায়, সে মামলার আসামী, তার পরিবারের অন্য সদস্যরা নয়। এসআই নজরুল গাড়ি পোড়ানো মামলাকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করে তার দলের অনেক নেতাকর্মীদের ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে নগদ ও বিকাশের মাধ্যমে মোটা অঙ্কের টাকা আদায় করছে। রাজনৈতিক পরিবেশের কারণে রিপন বাড়ি নেই জেনেও পুলিশ প্রায়ই তার বাড়িতে গিয়ে তাকে ধরিয়ে দিতে চাপ প্রয়োগের পাশাপাশি পরিবার সদস্যদের কাছ থেকে টাকা আদায় করার অজুহাতে অশ্লীল ভাষায় গালাগাল করছে। তিনি বিষয়টি উর্ধতন কর্মকর্তাদের সুদৃষ্টি কামণা করেছেন।
প্রসঙ্গত: ওই গাড়ি পোড়ানো মামলায় পুলিশের সাথে কথিত বন্দুকযুদ্ধে ছাত্রদল নেতা টিপু ও জাসাস কর্মী কবীর নিহত হয়েছিল। থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মনিরুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে টাকা আদায়ের ঘটনায় আমার কাছে কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ করলে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।