আজ আবুল কালাম আজাদ এর শুভ জন্মদিন

সাইফুল রহিম: বাবুগঞ্জের আলোকিত কন্ঠ পত্রিকা উপদেষ্টা বরিশালের কৃতি সন্তান আলোকিত মানুষ বিশিষ্ট ব্যবসায়ী শিক্ষা অনুরাগী মকবুল হোসেন ফাউন্ডেশন এর চেয়ারম্যান, এভারগ্রীন ট্রেডিং ইন্টারন্যাশনাল লি: ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ আবুল কালাম আজাদ এর শুভ জন্মদিন। তিনি বরিশাল বাবুগঞ্জের এক মুসলিম পরিবারে, ১৯৬৪ সালের ৩ আগস্ট জন্মগ্রহণ করেন। পিতা মরহুম মোঃ মকবুল হোসেন ,মাতা পরিতুন্নেছা বেগম,নিজ গ্রামে প্রাথমিক শিক্ষা সম্পন্ন করে১৯৭৯সালে বাবুগঞ্জ পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও ১৯৮১ বরিশাল কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করেন ।১৯৮৪ সালে বিএম বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে বি কম (অনার্স)পাশ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এম কম পাশ করেন। শিক্ষা জীবন শেষ করে বাবুগঞ্জের প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী এম এ কালাম এর এক্সেলসিয়র ট্রেডিং কর্পোরেশন লি: মধ্যে কর্মজীবন শুরু করেন।
১৯৯৩ সালে নিজের প্রতিষ্ঠিত এভারগ্রীন ইন্টারন্যাশনাল লিঃ মাধ্যমে ব্যবসায়ী শুরু করেন।তার ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে উল্লেখ যোগ্যসংখ্যক বেকারদের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করেছেন ।বাবুগঞ্জে বিভিন্ন সামাজিক উন্নয়নমূলক কাজে নিজেকে জড়িয়ে রেখে সমাজ সেবক হিসেবে খ্যাতি অর্জন করেন ।
ইতিপূর্বে মকবুল হোসেন ফাউন্ডেশন এর মাধ্যমে বাবুগঞ্জ দাখিল মাদ্রাসা সংলগ্ন মকবুল হোসেন এতিমখানা প্রতিষ্ঠা করেন এবং নিজ অর্থায়নে বাবুগঞ্জ কলেজ গেটে এতিমখানা ,মাদ্রাসা, মসজিদ, ইসলামী পাঠাগার বহুতল ভবন কমপ্লেক্স প্রকল্প উদ্বোধনের পথে।এছাড়াও এলাকায় গরীব মেধাবীদের বৃত্তি প্রদান সহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড পরিচালনা করেছেন ।তিনি বাবুগঞ্জ গার্লস স্কুলে সভাপতির হিসেবে এবং বাবুগঞ্জ থানার সমিতির সাধারণ সম্পাদক বর্তমানে সভাপতি হিসেবে সুনামের সহিত দায়িত্ব পালন করেন।তিনি বরিশাল জেলা সমিতি যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক,বিভাগ সমিতির আজীবন সদস্যএবং বাবুগঞ্জ সরকারি পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় বিদুৎসাহী সদস্য,বাবুগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ আজীবন দাতা সদস্য হিসেবে শিক্ষার মূল্যায়ন ও শিক্ষা বিস্তারে বিশেষ ভূমিকা রাখেন। আগামী দিনে নিজ জন্মভূমির কল্যাণে আরো গঠনমূলক কাজ করার আগ্রহ ব্যক্ত করেন।পারিবারিক জীবনে বড় ভাই রহমতপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ হাবিবুর রহমান। সহধর্মিনী মেহেরুন্নেসা শিরিন ১৯৯৫ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজ বিজ্ঞান বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করে সুপ্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করেন। তিন সন্তানের জনক বড় মেয়ে ফাতিমা তুজ জহুরা স্কলাসিপ নিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় আকিটেকচার ইঞ্জিনিয়ারিং এর উপর এম এস সি তে অধ্যয়নরত,মেঝ মেয়ে তাহছিন সামিয়া স্কলারসিপ নিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং এর উপর অনার্স এ অধ্যায়নরত,ছোট মেয়ে হাহিয়া আমজুম ক্লাস এইচ এস সি পড়েন, ব্যক্তিজীবনে আবুল কালাম আজাদ নিরহংকরী ও সদালোপী । সততা কে ভালবাসেন প্রাণপণে। তিনি মক্কা এবং মদীনা ঐতিহাসিক পবিত্র স্থান সমূহ সহ আমেরিকা, কানাডা ,ব্রাজিল ,ইটালি, গ্রীস, অস্ট্রিয়া, অস্ট্রিলিয়া ফ্রান্স ,জার্মানি, স্পেন, বেলজিয়াম ,নেদারল্যান্ড, সুইজারল্যান্ড ,ইংল্যান্ড, ভিয়েতনাম, কাতার,আরব আমিরাত, করিয়া ,সিঙ্গাপুর ,চিন, তাইওয়ান, জাপান,থাইল্যান্ড ,মালয়েশিয়া, ইন্ডিয়া , নেপালের,ভূটান, ঐতিহাসিক এবং দর্শনীয় স্থান সমূহ ভ্রমণ করেন। তিনি বাবুগঞ্জে সমাজ উন্নয়নে ব্যক্তি গত ভাবে অবদান রেখে সবার কাছে প্রিয় মানুষ হয়ে উঠেন।