উপকূলে লবনাক্ততা বৃদ্ধি পাওয়ায় বরিশালে ডায়রিয়ার প্রকোপ বেড়েছে ॥ নমূনা সংগ্রহ করেছে আইইডিসিআর

বরিশালে ডায়রিয়া প্রকোপ দিন দিন বাড়ছে। প্রতিদিন উপকূলীয় ৬ জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে অনেক রোগী এসে ভর্তি হচ্ছেন বরিশালের দুটি সরকারী হাসপাতাল সহ বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে। এদিকে সাম্প্রতিক সময়ে বরিশালে অস্বাভাবিক ডায়রিয়া আক্রান্তের কারন অনুসন্ধান শুরু করেছে আইইডিসিআর। মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ৪ ঘন্টায় ২৬ জন রোগী ভর্তি হয় বরিশাল জেনারেল হাসপাতালে। এর আগের ২৪ ঘন্টায় ভর্তি হয়েছে ৭০জন রোগী। চলতি মাসে এ পর্যন্ত জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছে ১ হাজার ৪জন ডায়রিয়া রোগী। এর আগে মার্চ মাসে চিকিৎসা নিয়েছে ৭২১জন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীরা জানায়, সম্প্রতি দেশের উপকূলীয় এলাকার নদ-নদী ও খাল-বিলে-পুকুরে লবনাক্ততা বেড়েছে। সেই পানি বিভিন্ন গৃহস্থালী কাজে ব্যবহার করায় ডায়রিয়ার প্রকোপ বেড়েছে বলে ধারনা তাদের। বরিশাল জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মলয় কৃষ্ণ বড়াল জানান, সাধারনত মার্চ ও এপ্রিল মাসে ডায়রিয়ার প্রকোপ দেখা দেয়। তবে এ বছর ডায়রিয়ায় আক্রান্তের হার একটু বেশী। এর কারন অনুসন্ধানে বরিশালে কাজ শুরু করেছে আইইডিসিআর। তারা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীদের সাথে কথা বলে নমূনা সংগ্রহ করছেন। ঢাকায় গিয়ে নমূনা পরীক্ষা করে পরবর্তী পদক্ষেপ নেবেন বিশেষজ্ঞরা।