উৎসব মুখর ফাইনাল খেলার পর্দা নামল আলী আজম মুকুল ফুটবল গোল্ডকাপ’র ।বিজয়ী দৌলতখান উপজেলা।

মনিরুজ্জামান,বোরহানউদ্দিন থেকে ঃ
রাস্তায় দর্শক,মাঠে দর্শক,। ট্রাকে ও দর্শক। রেহাই পায়নি কলেজ মাঠের চারদিকের গাছ আর প্রতিষ্ঠানের ছাদ।আবাল-বৃদ্ধ-বনিতা সবার সরব উপস্থিতি। প্রত্যন্ত অঞ্চল।স্টিডিয়াম নেই।তাই বলে মহিলা দর্শক ঘরে বসে নেই।তাদের ও উপস্থিতি। বিকাল ৪টায় দৌলতখান উপজেলা বনাম লালমোহন উপজেলার মধ্যে ফাইনাল খেলা।দুপুর ২টায় দৌলতখান-বোরহানউদ্দিন-লালমোহন ৩উপজেলার দর্শকদের উপস্থিতিতে মাঠ পরিপূর্ন। তিল ধরার ঠাই নেই। এক কথায় লোকে লোকারণ্য আব্দুল জব্বার কলেজ মাঠ। টান টান উত্তেজনা।উভয় দলেই কালো মানিকদের উপস্থিতি। পোষাকে এবং সিভিলে রয়েছে ৩ স্তরের নিরাপত্তা বেষ্ঠনি।মাঠে খেলা পরিচালনার জন্য ঢাকা থেকে আনা হয়েছে এলিট প্যানেলের রেফারি।বিকাল ৪টায় স্থানীয় তরুন সংসদ্য সদস্য আলী আজম মুকুল এমপি ক্রীড়া উপমন্ত্রী আরিফ খান জয় কে নিয়ে মাঠে প্রবেশ করলেন।উভয় দলের খেলোয়ারদের সাথে পরিচিতি পর্বের পর প্রধান অতিথি খেলা উদ্ধোধন করলেন। পরিচ্ছন্দ আর উত্তেজনাময় এ খেলায় দৌলতখান উপজেলা দল লালমোহন উপজেলা দলকে ২-১ গোলে পরাজিত করে বিজয়ী হয়। উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা মোঃ আঃ কুদদূস এর সভাপতিত্বে পুরুস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন যুব ও ক্রীড়া উপমন্ত্রী আরিফ খান জয়,স্থানীয় সংসদ সদস্য আলী আজম মুকুল,টাঙ্গাইল ৪ আসনের সংসদ সদস্য হাছান ইমান খান জেলা প্রশাসক মোহাং সেলিম উদ্দিন,পুলিশ সুপার মোকতার হোসেন।বক্তাগন এ সময় বলে বৃহত্তর পরিধিতে সুন্দর ও সুষ্ঠ ভাবে এ ধরনের খেলা আয়োজনের জন্য ধন্যবাদ জানান।তারা আর ও বলেন,বোরহানউদ্দিনের ক্রীড়া অঙ্গনকে চাঙ্গা করতে সব ধরনের সুযোগ সুবিদা প্রদান করা হবে।
উল্লেখ্য ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭ তারিখে মাদকমুক্ত ভোলা গড়তে সম্প্রীতির ফুটবল এ শ্লোগানকে সামনে রেখে আব্দুল জব্বার কলেজ মাঠে বোরহানউদ্দিন ও তজুমদ্দিন একাদশের মধ্যকার খেলা দিয়ে পর্দা উঠেছিল দ্বিতীয় বারের মতো এ টুর্নামেন্টের।এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিতি ছিলেন দৌলতখান উপজেলার চেয়ারম্যান মঞ্জুর আলম,পৌর মেয়র জাকির হোসেন বোরহানউদ্দিন পৌর মেয়র আলহাজ্ব মো: রফিকুল ইসলাম,উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা মোঃ আঃ কুদদূস লালমোহন উপজেলা চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন আহমেদ,নির্বাহি কর্মকর্তা আরিফুর রহমান,লালমোহন পৌরসভার মেয়র তুহিন পঞ্চায়েত