ঝালকাঠিতে অভিযান-১০ লঞ্চে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ষষ্ঠদিনে আরও ২ জনের মরদেহ উদ্ধার, লঞ্চটি জব্দ করেছে পুলিশ

ঝালকাঠিতে লঞ্চে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় একের পর এক ভেসে উঠছে মরদেহ। মঙ্গলবার সকালে এক নারী সহ নদী থেকে ২জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস। বুধবার সকালে ঝালকাঠির বিষখালী নদীতে অজ্ঞাত এক নারী ও এক যুবকের মরদেহ পাওয়া গেছে। সকাল সারে ৮ টায় বিষখালী নদীর তীরে চর থেকে নারীর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। অপর দিকে সকাল সারে ১১ টায় বিষখালী নদী তীরবর্তী ডহরশংকর এলাকার চর থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। মৃতদেহ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়। ঘটনা স্থলে পৌছে অজ্ঞাত পরিচয়ের এক নারী ও এক যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার করে ঝালকাঠি লঞ্চ টার্মিনালে নিয়ে আসে। পরে নারীর মরদেহটি ঝালকাঠি সদর থানা পুলিশের কাছে এবং যুবকের মৃতদেহ রাজাপুর থানায় হস্থান্তর করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঝালকাঠি ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ষ্টেশন কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম। তিনি বলেন উদ্ধার হওয়া নারীর বয়স ৩৫ ও যুবকের বয়স আনুমানিক ৩০ বছর। নারীর পড়নে ছিলো গোলাপী রঙ্গের কামিজ এবং যুবকের পড়নে ছিল জিন্স ও টি শার্ট।
সদর থানার ওসি খলিলুর রহমান জানান, প্রাথমিক ভাবে দেখে মনে হচ্ছে এই নারী ঐ লঞ্চের যাত্রী। সুরতহালের পর লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্তের পর নিশ্চিত হওয়া যাবে। রাজাপুর থানার ওসি পুলক চন্দ্র রায় জানান, উদ্ধারকৃত যুবকের হাত এবং মুখমন্ডল আগুনে পোড়া। তাই ধারনা করছি সে লঞ্চের যাত্রী ছিল। সুরত হালের পর লাশ মর্গে পেরন করা হয়েছে। অগ্নিকান্ডে পুরে যাওয়া অভিযান-১০ লঞ্চের এই দুই যাত্রীর মরদেহের পরিচয় মেলেনি। এনিয়ে উদ্ধারকৃত মোট মৃতদেহের সংখ্যা দারালো ৪৪ জনে।
এদিকে নৌ-অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে বুধবার ঝালকাঠিতে পরিদর্শনে আসেন ৪ সদস্যের প্রতিনিধি দল। এ কমিটির আহ্বায়ক নৌ অধিদপ্তরের ইঞ্জিনিয়ার শিপ সার্ভার অ্যান্ড এক্সামিনর আরাফাত হোসেন বলেন, অনেক গুলো বিষয় নিয়ে আমরা কাজ করছি এখনি কিছু বলা যাচ্ছে না তবে ইঞ্জিন রুম থেকে আগুনের সূর্তপাত কিনা সে বিষয়েও আমরা দতন্ত করছি ।
২৪ ডিসেম্বর লঞ্চ দুর্ঘটনার পর থেকে এখন পর্যন্ত নিখোঁজ রয়েছেন প্রায় অর্ধশত মানুষ। এ ঘটনায় নিখোঁজদের উদ্ধার অভিযানে রয়েছে ফায়ার সার্ভিস সিভিল ডিফেন্স, বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড ও পুলিশ নৌ।
এদিকে অগ্নিকান্ডের পর থেকে এ পর্যন্ত নদী থেকে ৫টি মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এরমধ্যে ২ জনের মরদেহ শনাক্ত করেছেন স্বজনরা। বাকি তিনজনের মরদেহ ময়নাতদন্ত শেষে শনাক্ত হওয়ার পর পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলে জানিয়েছেন ঝালকাঠি সদর থানার ওসি খলিলুর রহমান।
ঝালকাঠি সদর থানায় দায়েরকৃত মামলার দতন্তকারি কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম বলেন, পুরে যাওয়া অভিযান-১০ লঞ্চটি জব্দ করা হয়েছে এবং আলামত সংগ্রহ করছে থানা পুলিশ।