দীর্ঘ সাড়ে তিন মাস পর ঢাকা-বরিশাল আকাশ পথে বিমান চলাচল শুরু

বরিশাল-ঢাকা আকাশপথে দীর্ঘ সাড়ে তিন মাস পর আগামী কাল রবিবার থেকে ইউএস-বাংলা ও নভো এয়ারের একটি করে ফ্লাইট পরিচালনার অনুমতি প্রদান করেছে। শনিবার সকালে নভো এয়ার থেকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে খবরটি নিশ্চিত করেছেন। করোনা ভাইরাসের সংক্রমন ঠেকাতে গত ২৬ মার্চ থেকে বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ আকাশ পথে যাত্রীবাহী উড়োজাহাজ চালাচল বন্ধ ঘোষনা করা হয়। পরবর্তিতে ১ জুন সরকারঘোষিত সাধারণ ছুটি শেষ হওয়ার পর ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম, সিলেট, যশোর ও সৈয়দপুর রুটে বিশ^ স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনা মেনে ফ্লাইট চলাচল শুরু হলেও ঢাকা-বরিশাল রুটে ফ্লাইট চলাচল শুরু হয়নি। স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনা অনুযায়ী, ফ্লাইট চলাচল শুরু করতে হলে বিমানবন্দরে পর্যাপ্ত চিকিৎসা ব্যবস্থা ও চিকিৎসক থাকতে হবে। কোন রোগী বিমানে অসুস্থ বোধ করলে বিমানবন্দরে নেমে যাতে প্রাথমিক চিকিৎসা নিতে পারেন।
বরিশাল বিমানবন্দর সূত্রে জানা গেছে, প্রতিনিয়ত ফ্লাইট চালুর বিষয়ে আমাদের কাছে যাত্রীদের চাপ বাড়ার কারনে ফ্লইট চালুর বিষয়ে সিভিল সার্জনের কাছে চিঠি দেওয়ার পর তাদের সহযোগিতায় রবিবার থেকে আবার যথারিতী ঢাকা-বরিশাল রুটে ফ্লাইট চলাচল শুরু হচ্ছে। তবে ফ্লাইট পরিচালনার ক্ষেত্রে সব এয়ারলাইনস ও যাত্রীদের শারীরিক দূরত্ব, পরিচ্ছন্নতা, মাস্ক ও হ্যান্ড গ্লাভস সহ স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে হবে। এয়ারক্রাফটের ধারণক্ষমতার ৭৫ শতাংশের বেশি যাত্রী নেওয়া যাবে না। এছাড়া যাত্রীদের বসার ক্ষেত্রে শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে হবে। এই বিমানবন্দর থেকে প্রতিদিন ঢাকার পথে পাঁচটি উড়োজাহাজে গড়ে ৩০০ যাত্রী পরিবহন করত। তবে প্রথম পর্যয়ে রবিবার থেকে ঢাকা-বরিশাল রুটে প্রতিদিন ২টি করে ফ্লাইট চলাচল করার সিদ্ধান্ত হয়।
বেসরকারি ইউএস-বাংলার বরিশালের অপারেশনাল এক্সিকিউটিভ সৈয়দ সুহান বলেন, বর্তমানে বরিশালে সরকারি অনেক মেগা প্রকল্প চলমান থাকার কারনে উড়োজাহাজের যাত্রীর চাপ দিন দিন বেড়েই চলেছে। তাই বিমানের ফ্লাইট চালুর খবরে যাত্রীদের মনে সস্তি ফিরে এসেছে।
বরিশাল বিমানবন্দর শাখার ব্যবস্থাপক শহিদুল আলম জানান, ফ্লাইট চালুর ক্ষেত্রে সিভিল এভিয়েশনের বেশ কিছু শর্ত মেনে রবিবার থেকে ঢাকা-বরিশাল আকাশ পথে উড়োজাহাজ চলাচলের অনুমতি দিয়েছে। আমরা সব শর্ত পূরন করে ফ্লাইট চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি।