পাট গরুতে খাওয়ায় বরিশালে মাদ্রাসা ছাত্রকে কুপিয়ে হত্যা

ক্ষেতের পাট গরুতে খাওয়াকে কেন্দ্র করে বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জে সৌরভ খা (১৫) নামে এক মাদ্রাসা ছাত্রকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষরা।
শুক্রবার ভোরে উপজেলার বিদ্যানন্দপুর ইউনয়নের পশ্চিম রতœপুর গ্রামের বিলের মাঠে সংঘর্ষে আহত ওই ছাত্র চিকিৎসার অভাবে শনিবার দিবাগত রাত আড়াইটায় বাড়িতেই মারা গেছে। নিহত সৌরভ সন্তষপুর নেছারিয়া ফাজিল মাদ্রাসার ছাত্র।
কাজিরহাট থানা পুলিশ জানিয়েছে, প্রতিপক্ষের হামলায় ওই ছাত্র নিহত হয়েছে। খুনের পর বাড়িঘরে হামলার আশংকায় ওই এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। আহাজারি করছে মাদ্রাসা ছাত্র সৌরভের পরিবার।
নিহত সৌরভের বাবা মনির খা জানান, আফজাল সিকদার, কালু সিকদার, জামাল সিকদার, মজিবর হাওলাদার, রুমি সিকদারের সাথে জমি নিয়ে বিরোধ চলছিল। শুক্রবার ক্ষেতের পাট গরুতে খাওয়াকে কেন্দ্র করে ওই প্রতিপক্ষরা তার পুত্রকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করে। একই ঘটনায় আহত হয়েছেন মফছের সিকদার (৫৫), আফছার সিকদার (৬০), সুজন সিকদার (২২), সরিমা বেগম(৩৫), সজিব সিকদার জলিল সিকদার।
জানা গেছে, আহতদের পার্শবর্তী মুলাদী হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে গুরুতর আহত সৌরভকে শেবাচিম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেয় চিকিৎসক। তবে করোনা পরিস্থিতিতে ওই ছাত্রকে হাসপাতালে না নিতে পেরে বাড়িতেই রাখে। এ অবস্থায় শনিবার দিবগত রাতে তার মৃত্যু হয়।
সৌরভের মামা আরিফ সিকদার বলেন, ইউপি সদস্য রুমি সিকদার এই হামলায় নেতৃত্ব দিয়েছে। সংঘর্ষের পরদিনও সে লোকজন নিয়ে এলাকায় মহড়া দিয়েছে। ওই ঘটনায় দুটি বাড়িতে হামলাও হয়েছে।
বিদ্যানন্দপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জলিল মিয়া বলেন, শুক্রবার ভোরে ক্ষেতের পাট খাওয়া নিয়ে নিহত সৌরভ খা এর সাথে ঝগড়া হয় মজিবর সিকদারের। এরপর কালু সিকদার, আফজাল সিকদারসহ কয়েকজন সৌরভকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। ওই ঘটনায় আরও কয়েকজন আহত হয়েছেন। তাদের পার্শবর্তী মুলাদী স্বাথ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়। শনিবার দিবাগত রাত আড়াইটায় বাড়িতে বসে সৌরভের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় রাতে উত্তেজনা দেখা দিলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। চেয়ারম্যান জলিল বলেন, নিহতের মা-বাবা দাবী করেছেন হত্যা কান্ডে দেশীয় অস্ত্র সরবরাহ করে মদদ দিয়েছেন ২ নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য রুমি সিকদার।
ঘটনাস্থলে যাওয়া কাজিরহাট থানার ওসি (তদন্ত) আ: খালেক বলেন, প্রতিপক্ষের হামলায় মাদ্রাসা ছাত্র সৌরভের মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। ওই ঘটনায় শনিবার নিহতের মামা জলিল সিকদার বাদী হয়ে ১১জনকে আসামী করে মারামারির মামলা দায়ের করেছেন। ওই মামলাই হত্যা মামলা হিসেবে রুজু হবে। তিনি বলেন, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কেউ আটক হয়নি। ###