বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে রাজপথে আন্দোলন-সংগ্রাম করে দেশের স্বাধীনতা অর্জনের জন্য আমরা জেল-জুলুমের শিকার হয়েছি ——-আনোয়ার হোসেন মঞ্জু

পিরোজপুর জেলার ভা-ারিয়ায় মঙ্গলবার একাধিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টি-জেপি’র চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন মঞ্জু এমপি। এ সময় তিনি বলেন, অর্জিত সম্পদ ব্যয় করে জীবনমানের উন্নয়ন সাধন করতে হয়। মানুষের চাহিদা থাকে বলেই তার ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটে। তবে আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে যাওয়াদের থেকে সাবধান থাকতে হবে।
তিনি আরও বলেন, যারা ঘরের মধ্যে জামায়াত-শিবির লালন-পালন করে বাইরের লোকদের রাজাকার বলে তাদের রুখে দিতে হবে। ভা-ারিয়া শান্তিপূর্ণ এলাকা এখানে বিশৃংখলকারীদের স্থান হবে না। কেউ যদি বিশৃংখল পরিস্থিতি সৃষ্টি করে তা রুখে দেয়া হবে। আমাদের দিকে কেউ রক্ত চক্ষু করে তাকালে তাও প্রতিরোধ করা হবে। দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফজরের পর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত নিরলস পরিশ্রম করে উন্নয়ন করে যাচ্ছেন। ভা-ারিয়ার উন্নয়ন নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বিভিন্ন সময় প্রশংসা করে থাকেন। কিছু লোক উন্নয়নের টাকা মেরে খাচ্ছে। তিনি মঙ্গলবার বিকেলে ভা-ারিয়া উপজেলা জাতীয় যুব সংহতি আয়োজিত রিজার্ভ পুকুর পাড়ের উপজেলা জেপি কার্যালয় প্রাঙ্গনে জাতীয় পার্টি জেপি’র অঙ্গসংগঠন যুব সংহতির কর্মী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন। তিনি যুব সংহতির নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, উন্নয়নমূলক কার্যক্রমে অংশ নিয়ে ভালো মানের কাজ করে মানুষের মন জয় করতে হবে। টাকা দিয়ে মানুষের মন জয় করা যায় না। তিনি বলেন, নির্বাচনের এখনো সাড়ে তিন বছর বাকি রয়েছে। এখনই যারা ষড়যন্ত্র করছে তাদের থেকে সাবধান থাকতে হবে। আমরা কোনো যুদ্ধ করতে আসিনি, যুদ্ধ হবে নির্বাচনের সময়। নির্বাচনে বাংলাদেশের মানুষ কখনো ভুল করেনি আর করবেও না। দেশের শান্তির জন্য আমরা সবসময় সংবিধানের পক্ষে থেকে অস্থিতিশীল পরিবেশ রুখে দিয়েছি। যারা চাল-ডাল-তেল চুরি করে প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়ন কার্যক্রম লোপাট করছে তারা কোনো দলের হতে পারে না।
তিনি আরও বলেন, কথা বলতে হবে ইমানের সাথে বেঈমানদের আল্লাহ পছন্দ করেন না। এলাকায় ৩৬ বছরের রাজনৈতিক জীবনে কখনোই অন্যের উপর আমাদের মত চাপিয়ে দেইনি। সব সময় আমাদের প্রচেষ্টা ছিলো সকল মতকে এক করে এলাকার উন্নয়ন প্রক্রিয়াকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। পাকিস্তান আমলে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে রাজপথে আন্দোলন-সংগ্রাম করে দেশের স্বাধীনতা অর্জনের জন্য আমরা জেল-জুলুমের শিকার হয়েছি। আমাদেরকে ভয় দেখিয়ে লাভ নেই। ভয় দেখিয়ে আমাদের পিছু হঠানো যাবে না। ভা-ারিয়ায় জাতীয় পার্টি-জেপি ও অঙ্গ সংগঠনের বিদ্যমান আহ্বায়ক কমিটি গুলোই কাজ করবে এবং বহাল থাকবে।
জাতীয় যুব সংহতি ভা-ারিয়া উপজেলা আহবায়ক ও পিরোজপুর জেলা পরিষদ সদস্য মো. রেজাউল হক রেজভী জোমাদ্দারের সভাপতিত্বে উপজেলা জেপি’র সদস্য সচিব ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আতিকুল ইসলাম উজ্জল তালুকদারের উপস্থাপনায় এখানে আরও বক্তব্য রাখেন যুব সংহতির কেন্দ্রীয় সভাপতি এডভোকেট এনামুল ইসলাম রুবেল ও ভা-ারিয়া উপজেলা ছাত্র সমাজের আহ্বায়ক মো. সালাহউদ্দিন রাহাত জোমাদ্দার। এসময় অন্যান্যের মধ্যে মঞ্চে ছিলেন জেপি’র ভা-ারিয়া উপজেলা আহ্বায়ক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মনিরুল হক মনি জোমাদ্দার, সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মাহিবুল হোসেন মাহিম, জেপি’র যুগ্ম আহ্বায়ক ও পৌর কাউন্সিলর গোলাম সরওয়ার জোমাদ্দার, মহিলা পার্টির উপজেলা সভানেত্রী ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আসমা আখতার, উপজেলা জেপি’র যুগ্ম আহবায়কদের মধ্যে নদমুলা ইউপি চেয়ারম্যান সফিকুল কবির বাবুল তালুকদার, গৌরিপুর ইউপি চেয়ারম্যান মজিবুর রহমান চৌধুরী, ইকরি ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হারেছ ও তানভির হোসেন বাবু তালুকদার, কাওসার হোসেন মালকারসহ জেপি নেতা শহিদুল আলম খোকন সিকদার, শাহরিয়ার হোসেন দুলাল মল্লিক, পৌর জেপি’র আহবায়ক জামাল উদ্দিন মিয়া স্বপন ও সদস্য সচিব আহসানুল কিবরিয়া ফরিদ মল্লিক প্রমুখ।