বরিশালের আগৈলঝাড়ায় তৃতীয় শ্রেনীর ছাত্রীর আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা

বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার বাগধা ইউনিয়নের খাজুরিয়া গ্রামের নিজ ঘর থেকে তৃতীয় শ্রেনীর এক ছাত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে স্বজনরা। এ ঘটনায় ঐ ছাত্রীর স্কুলের এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে মামলা করেছেন তার বাবা। মামলার অভিযোগ তদন্ত করে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছেন বরিশালের পুলিশ সুপার। বুধবার দুপুরে খাজুরিয়া গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে নুসরাত জাহান নোহা (৯) নামে ঐ শিক্ষার্থীকে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করে পরিবারের সদস্যরা স্থানীয় পয়সারহাটের একটি ক্লিনিকে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। ঐ পরিবারের সদস্যদের উদ্ধৃতি দিয়ে পুলিশ জানায়, নোহা স্থানীয় দারুল ফালাহ প্রি ক্যাডেট স্কুলের তৃতীয় শ্রেনীর শিক্ষার্থী ছিলো। পরীক্ষায় অকৃতকার্য হওয়ায় ঐ স্কুলের সহকারী শিক্ষক শফিকুল ইসলাম সুমন তাকে মারধর করে। এতে সে অপমানিত বোধ করে বাসায় ফিরে কান্নাকাটি করে। এক পর্যায়ে ক্ষোভে অভিমানে সে নিজেদের টিনশেড ঘরের দোতালায় আড়ার সাথে ওড়না বেঁধে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। এ ঘটনায় নোহার বাবা সুমন মিয়া বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার আগৈলঝাড়া থানায় আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে অভিযুক্ত শিক্ষক শফিকুল ইসলাম সুমনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে নোহার লাশের ময়না তদন্ত সম্পন্ন হয়। এ ঘটনায় যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছেন পুলিশ সুপার। একই সাথে করোনাকালে সরকারিভাবে স্কুল বন্ধ থাকার পরও ঐ স্কুলে কিভাবে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হলো তা খতিয়ে দেখার কথা বলেন পুলিশ সুপার।