বরিশালের গণমাধ্যমকর্মীদের সাথে মতবিনিময় সভায় নবাগত পুলিশ সুপার

বরগুনায় দায়িত্বপালনকালে রিফাত হত্যা মামলায় পেশাদারিত্বের দিক থেকে সফল হলেও নাগরিক হিসেবে সফল হতে পারিনি। এই মামলায় অনেকের সাজা হয়েছে, অনেক পরিবার বিপদগ্রস্থ হয়েছে। সমাজে এরকম ঘটনা যাতে আর না ঘটে সেদিকে সবাইকে সচেতন হতে হবে। বুধবার নবনিযুক্ত বরিশাল জেলা পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেন পিপিএম এক মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন। পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন এর আগে বরগুনায় দায়িত্ব পালনকালে আলোচনায় আসেন।
বরিশাল পুলিশ লাইন্স ড্রিম শেডে দুপুরে গনমাধ্যমকর্মীদের সাথে অনুষ্ঠিত ঐ মতবিনিময় সভায় পুলিশ সুপার গনমাধ্যমকর্মীদেরকে পুলিশের সহকর্মী হিসেবে অবহিত করে বলেন, আমাদের মত সাংবাদিকদেরও অনেক চ্যালেঞ্জ নিয়ে কাজ করতে হয়। পুলিশের তো অস্ত্র আছে, গনমাধ্যমকর্মীদের তো তাও নেই। তিনি এসময় পুলিশের প্রতি আস্থা রাখার জন্য গনমাধ্যমকর্মীদের আহবান জানিয়ে বলেন, তথ্য পেতে ২৪ ঘন্টার মধ্যে ফেসবুক গ্রুপ খোলা হবে। তাকে মোবাইল ফোনে ২৪ ঘন্টা পাওয়া যাবে। গনমাধ্যমকর্মীদের জন্য জেলা পুলিশের দপ্তর সব সময় সহযোগিতায় এগিয়ে আসবে বলেও প্রতিশ্রুতি দেন নব নিযুক্ত পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেন। মতবিনিময় সভায় গনমাধ্যমকর্মীরা তথ্য পেতে থানা পুলিশের অসহযোগিতা, জেলা পুলিশকে সাংবাদিক বান্ধব হিসেবে গড়ে তোলা এবং বিটি পুলিশিং কে আরও গতিশীল করে জনগনের সেবায় কাজে লাগানোর আহবান জানান।
মতবিনিময় সভায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. নাইমুল হক ও মো. শাহজাহান, মেট্রোপলিটন প্রেসক্লাবের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, জেলা প্রেসক্লাবের বিদায়ী সাধারন সম্পাদক এসএম জাকির হোসেন ও সদ্য নির্বাচিত সাধারন সম্পাদক কাজী মিরাজ মাহমুদ এবং রিপোর্টার্স ইউনিটির সাবেক সভাপাতি সুশান্ত ঘোষ সহ বিভিন্ন জাতিয় ও স্থানীয় দৈনিক এবং টেলিভিশন চ্যানেলে কর্মরত সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।