বরিশালের বাকেরগঞ্জে দুই সন্তানের জননীকে ধর্ষনের চেষ্টা

বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার ১০ নং গারুড়িয়া ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ড সাহেবপুর গ্রামে দুই সন্তানের মা তার সন্তানদের সামনে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাটি ১০ ফেব্রুয়ারি রাত আনুমানিক ২ টায় ধর্ষিতার স্বামীর বাড়ীতে ঘটেছে বলে মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে। মামলা সুত্রে জানাযায়, সাহেবপুর গ্রামের ধর্ষিতার স্বামী ঢাকায় চাকুরী করেন, ঘটনার দিন রাতে মামলার বাদী দুই সন্তানকে নিয়ে পার্শ্ববর্তী বাড়িতে টিভি দেখতে গেলে সেই সুযোগে ফাঁকা ঘরে লম্পট আলাউদ্দিন নিজে লুকিয়ে থাকে,টিভি দেখে নিজ ঘরে ফিরে এসে সন্তানদের নিয়ে ঘুমিয়ে পড়তেই হঠাৎ গভীর রাতে আলাউদ্দিন মীর তার মুখমন্ডল চেপে ধরে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করলে তাৎক্ষনিক তার হাতের কাছে থাকা টর্চ লাইট জ্বালিয়ে সে আলাউদ্দিন মীরকে চিনে ফেলে এবং ডাকচিৎক শুরু করে ঠিক সেই সময় ঘাতক আলাউদ্দিন মীর ঘরের খাটের নিচে থাকা বটি তার সন্তানের গলায় ঠেকিয়ে সন্তান হত্যার ভয় দেখিয়ে একই ঘরের অন্য রুমে নিয়ে তার পরিহিত পোশাক খুলে তাকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায় এরপর ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে আসেন এরপর স্থানীয় ইউপি সদস্য বাবুল এসে বিষয়টি কাউকে না জানানোর জন্য হুমকি দিতে থাকেন এবং হত্যার ভয় দেখান। ঘটনার পরের দিন তাদের বিভিন্ন ধরনের ভয়-ভীতি দেখিয়ে ধর্ষক আলাউদ্দিন মীর ও তার সহযোগি ইউপি সদস্য বাবুলের কিছু লোকজন তাদের বাড়ির মধ্যে আটকে রাখেন। খবর পেয়ে তার স্বামী ঢাকা থেকে চলে আসেন এবং ১১ ফেব্রুয়ারি রাত এগারোটার সময় তার স্ত্রীকে নিয়ে বাকেরগঞ্জ থানায় অভিযুক্ত আলাউদ্দিন ও তার সহযোগী হিসাবে ইউপি সদস্য বাবুলের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।
এ বিষয়ে বাকেরগঞ্জ থানার ওসি আলাদ্দিন মিলন জানান, ঘটনার দুই দিন পর বাদী অভিযোগ দায়ের করলেও বিষয়টি আমলে নিয়ে আমি সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে বাদীসহ ঘটনাস্থলে ছুটে যাই এবং প্রাথমিক তদন্ত সাপেক্ষে মামলা নেই,পরবর্তী তদন্ত চলমান আছে এবং আসামীদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যহত আছে।