বরিশালের রাস্তায় মানুষ ও যানবাহন আরও বেড়েছে

কঠোর লকডাউনের পঞ্চম দিন বরিশালের রাস্তাঘাটে মানুষ ও যানবাহন চলাচল আরও বেড়েছে। তবে নগরীর বেশীরভাগ দোকানপাঠ বন্ধ রয়েছে। এদিকে লকডাউন এবং স্বাস্থ্য বিধি বাস্তবায়নে মঙ্গলবার নগরীতে পৃথক ৬টি ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেছে জেলা প্রশাসন। এছাড়া আইন শৃঙ্খলা বাহিনীও চেকপোস্টে যানবাহন নিয়ন্ত্রন করা সহ টহল অব্যাহত রেখেছে। কঠোর লকডাউনের পঞ্চম দিন বরিশালের রাস্তায় আরও বেড়েছে মানুষ এবং যানবাহন চলাচল বেড়েছে। প্রয়োজনে-অপ্রয়োজনে নানা অজুহাতে রাস্তায় বের হয়েছেন মানুষ। সকালের দিকে নগরীর পোর্ট রোড ইলিশ মোকাম সহ সবগুলো বাজারে ছিলো প্রচুর ভীর। বাজারে কিছু মানুষ মাস্ক ব্যবহার করলেও বেশীরভাগ মানুষের মাস্ক ছিলো থুতনীর নীচে। আবার মাস্ক ছাড়াও বাজারে অনেক ক্রেতা-বিক্রেতাকে দেখা গেছে। সকালের দিকে নগরীর প্রধান প্রধান রাস্তাঘাট ছিলো রিক্সা, মোটর সাইকেল এবং ব্যক্তিগত যানের দখলে। অন্যান্য গনপরিবহন বন্ধের সুযোগে রিক্সাভাড়া বেড়েছে কয়েকগুন। সামর্থ না থাকায় কিছু মানুষকে হেটে দূরদূরান্তের উদ্দেশ্যে যেতে দেখা গেছে। তবে বেলা বাড়ার সাথে সাথে রাস্তাঘাট অনেকটা ফাঁকা হয়ে যায়। নগরীর প্রধান প্রধান বানিজ্যিক কেন্দ্র সদর রোড, চকবাজার, বাজার রোড সহ অন্যান্য এলাকায় বেশীরভাগ দোকানপাঠ বন্ধ রয়েছে। খোলা রয়েছে খাদ্য এবং ওষুধ সামগ্রীর দোকান। তবে পাড়া মহল্লায় সব কিছু চলছে স্বাভাবিকভাবে।
এদিকে লকডাউন এবং স্বাস্থ্য বিধি বাস্তবায়নে গতকাল সকালে নগরীতে পৃথক ৩টি ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে জেলা প্রশাসন। জনস্বার্থে এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলে জানান জেলা প্রশাসনের সহকারি কমিশনার সুব্রত বিশ^াস দাস।
অপরদিকে নগরীর বিভিন্ন প্রবেশদার সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ন স্থানে চেকপোস্ট স্থাপন করে যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রন করছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। এছাড়াও জোরদার টহল দিচ্ছে তারা।