বরিশালে ঈদ-উল-আযহার জামাত অনুষ্ঠিত

দেশ ও দশের শান্তি কামনার মধ্য দিয়ে বরিশালে মুসলিম ধর্মালম্বিদের সর্ববৃহৎ উৎসব ঈদ-উল আযহার জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আগের দিন বিকেল ও রাতে বৃষ্টি হওয়ার কারনে শীতল আবহাওয়ার মধ্যে সকাল ৮ টায় বরিশাল কেন্দ্রীয় হেমায়েতউদ্দিন ঈদগাহ ময়দানে কঠোর নিরাপত্তা বলয়ের মধ্য দিয়ে কোরবানির ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

নামাজ শেষে দেশ-দেশের জনগনের শান্তি কামনায় বিশেষ দোয়া মোনাজাত আনুষ্ঠিত হয়েছে।

ঈদের এ প্রধান জামাতে বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আহসান হাবীব কামাল, বরিশাল ২ আসনের সাংসদ এ্যাড. তালুকদার মোঃ ইউনুস, বরিশাল জেলা পরিষদের প্রশাসক খান আলতাফ হোসেন ভুলু, বরিশাল জেলা প্রশাসক ড. গাজী মোঃ সাইফুজ্জামান, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মো. নুরুল আলম,  অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আবুল কালাম আজাদ,  মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এ্যাড. আফজালুল করিম, আওয়ামীলীগ নেতা সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ, বরিশাল সদর উপজেলা চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান রিন্টুসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ ও প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

নামাযের আগে বয়ানে হাজী মাওলানা শিহাব উদ্দিন বলেন, বাংলাদেশ ধর্মপ্রান মুসলামানদের দেশ, এখানে সবস্তরের মানুষ শান্তিতে বসবাস করে, যারা শান্তি নষ্ট করছে, তারা কোন কু-চক্রের সাথে হাত মিলিয়ে ইসলাম ধর্ম ও এর মযার্দাকে ধ্বংস করছে।

অপরদিকে ঈদ-উল আযহার নামাযকে কেন্দ্র করে বরিশাল নগরী ও জেলার সকল উপজেলায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারী বাড়ানো হয়েছে। প্রধান ঈদগাহ ময়দানকে কেন্দ্র করে র‌্যাব-পুলিশের তিন স্তরের নিরাপত্তা আগে থেকেই নিশ্চিত করা হয়। জায়নামাজ ছাড়া মুসল্লীদের সাথে কোন ব্যাগ গ্রহনযোগ্য ছিলোনা।

এছারা জেলায় বৃহত্তর ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয় উজিরপুরের গুঠিয়া বায়তুল আমান জামে মসজিদ ও বরিশাল সদর উপজেলার চরমোনাই মাদ্রাসা ময়দানে।

নগরীর ৪ টি মসজিদে দু’টি করে এবং শতাধিক মসজিদে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়।