বরিশালে ওসি সাখাওয়াত ও এস.আই মহিউদ্দিনের নির্দেশে শ্রমিকদের উপর বৃষ্টির মতো গুলিবর্ষণ ॥ ৫ শ্রমিক গুলিবিদ্ধ ॥ আহত অর্ধশত

বরিশাল টুডে ॥ বরিশালে বেতন বৃদ্ধিসহ ১২দফা দাবীতে অপসোনিন’র ওষুধ তৈরি কারখানায় বিক্ষোভরত শ্রমিকদের উপর কোতয়ালী মডেল থানার ওসি সাখাওয়াত ও এসআই মহিউদ্দিন বৃষ্টির মতো গুলি চালিয়েছে। পুলিশের ছোড়া রাবার বুলেটে শ্রমিক জুয়েল, কামাল, রিয়াজ, কবির ও সাইফুল গুলিবিদ্ধ হয়।

বিক্ষুদ্ধ শ্রমিকরা জানায়, কথায় কথায় শ্রমিক ছাটাই বন্ধ ও বেতন – ভাতা বৃদ্ধির দাবী সহ ১১ দফা দাবীতে দীর্ঘদিন যাবত তারা আন্দোলন করে আসছিলো। শ্রমিকদের আন্দোলনের প্রেক্ষিতে গত ৩ জুন ঢাকা থেকে উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এসে ১১ জুন বেতন বৃদ্ধির আশ্বাস দেয়। কিন্তু ১১ তারিখ থেকে শ্রমিকরা হেড অব প্রোডাক্টশন আঃ মান্নান, কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর মোঃ সেলিম ও সাইদের কাছে ধর্না দিলেও কোনো লাভ হয়নি। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে শ্রমিক শাকিল ও শাওন কর্মকর্তা সালাউদ্দিনের কাছে বেতন বৃদ্ধির ব্যাপারে জানতে গেলে তাদের ঐ কর্মকর্তার কক্ষে আটকে রেখে বেদম মারধর করা হয়। এতে শ্রমিকদ্বয় গুরুতর আহত হলে তাদেরকে বের করে শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়।

এ খবর সাধারণ শ্রমিকদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে কারখানার প্রায় ১৭শ’ শ্রমিক বিক্ষোভ শুরু করে। তারা ফ্যাক্টরীতে হামলা ও ভাংচুর চালায়। এসময় কোম্পানীর কর্মকর্তারা ফ্যাক্টরী ত্যাগ করে নিরাপদ আশ্রয় গ্রহণ করেন। খবর পেয়ে সেখানে ফোর্স নিয়ে হাজির হয় কোতয়ালী মডেল থানার ওসি সাখাওয়াত ও এসআই মেয়র মহিউদ্দিন। তারা নিরহ শ্রমিকদের উপর বৃষ্টির মতো গুলিবর্ষন করে। এসময় বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা ফ্যাক্টরীর নানান সামগ্রী পুলিশের উদ্দেশ্যে নিক্ষেপ করে।

বিকেল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত এ সংঘর্ষের সময় দেড় শতাধিক রাউন্ড গুলিবর্ষণের কথা স্বীকার করেছে এস.আই মহিউদ্দিন পুলিশ।

বিকেল সাড়ে ৫টায় শ্রমিকরা ক্লান্ত হয়ে ফ্যাক্টরী এলাকা ছেড়ে গেলে পরিস্থিতি শান্ত হয়। তবে পুনরায় হামলার আশংকায় ফ্যাক্টরীতে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। বগুড়া রোড এলাকায় চরম আতংক বিরাজ করছে।