বরিশালে টাকা চুরির অভিযোগে শিশুর হাত বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ

বরিশালে টাকা চুরির অপবাদ দিয়ে জিসান (১১) নামের তৃতীয় শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীকে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার বিকেলে নগরীর গবেষনা সড়ক এলাকায় জিসানকে মুদি দোকানী মো. পারভেজ নির্যাতন করেন। গুরুতর অবস্থায় ঐদিন সন্ধ্যায় জিসানকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেলের শিশু সার্জারী ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। জিসান একই এলাকার বাসিন্দা দিনমজুর শাহজাহান মিয়ার ছেলে এবং সাগরদি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র। জিসানের মা হাসিনা বেগম অভিযোগ করেন, পারভেজের দোকান থেকে ১৯০ টাকা চুরির অভিযোগে শুক্রবার বিকেলে জিসানকে বাসা থেকে ডেকে নেয় সে। পরে দাবীকৃত টাকা পাওয়ার জন্য হাত বেঁধে দেয়ালে জিসানের মাথায় আঘাত করে সে। এতে জিসান গুরুতর জখম হলে ঘটনাস্থলেই বমি করে। প্রত্যক্ষদর্শীদের মাধ্যমে খবর পেয়ে মা হাসিনা বেগম ও বাবা শাহাজাহান মিয়া ঘটনাস্থলে গিয়ে জিসানকে উদ্ধার করে শের-ই-বাংলা মেডিকেলে ভর্তি করে। জিসানের মাথায় একাধিক আঘাত থাকলেও সে আশংকামুক্ত বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক। এ ঘটনায় স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনিসুর রহমান শরীফ বিচার করে দেয়ার আশ্বাস দেয়ায় থানায় কোন অভিযোগ করেননি। ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনিসুর রহমান শরীফ জানান, জিসান দোকানী পারভেজের দোকান থেকে টাকা চুরি করেছিল। কিছু টাকা ফেরতও দেয়া হয়েছে। তবে জিসানকে মারধর করা ঠিক হয়নি। মারধরের অভিযোগ অস্বীকার করে দোকানী মো. পারভেজ বলেন, জিসানের চুরি করা কিছু টাকা তার মা ফেরত দিয়েছে। বাকি টাকা চাইলে নির্যাতনের মিথ্যা অভিযোগ করেন তারা।