বরিশালে পায়ের অপারেশনের পর রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ

পায়ের অপারেশনের পর বরিশালের রাহাত আনোয়ার হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় রোগী মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। বুধবার বেলা ১১টার দিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। মৃত রোজী আক্তার (৪০) বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার রহমতপুর এলাকার মৃত আব্দুল আজিজ মাস্টারের স্ত্রী।
রোজী আক্তারের স্বজন রাশিদা বেগম অভিযোগ করে বলেন, গত বৃহস্পতিবার নিজের বাসায় এক্সিডেন্ট করে পা ও হাত ভেঙে যায় রোজী আক্তারের। এরপর বরিশালের ইসলামিয়া হাসপাতালের ডাঃ মনিরুল ইসলাম শাহিনকে দেখালে সে থাকতে পারবে না এবং অপর একজন ডাক্তারকে দেখাতে বলেন। সোমবার রাহাত আনোয়ার হাসপাতালে গিয়ে আমরা ডাঃ ফজলে রাব্বিকে দেখাই। তিনি ভাঙা পায়ের অপারেশন করতে পারবেন, তবে হাতেরটি করতে পারবে না বলে জানায়। আমরা রাজি হয়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রোজী চাচিকে রাহাত আনোয়ার হাসপাতালে ভর্তি করাই। রাত সাড়ে ১১টায় অপারেশন শেষ হয়। জ্ঞান ফেরার পর থেকেই রোজী চাচী শরীরে ব্যথা অনুভব করে। রাতে ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী একজন নার্স এসে রোলাক ইনজেকশন পুশ করে। এর কিছুক্ষণ পরেই শ্বাস কষ্ট শুরু হয় রোজী চাচীর। অক্সিজেনও দেয়া হয়েছিলো কিন্তু কোনো কাজ হয়নি। বুধবার বেলা ১১টার দিকে মারা যায় সে।
তিনি অভিযোগ করেন, ডাক্তার ভুল চিকিৎসা দিয়েছে। অপারেশন থিয়েটারে ঢোকার আগে রোজী চাচী সুস্থ ছিলো। ডঃ ফজলে রাব্বি ভুল চিকিৎসা দেয়ায় তার মৃত্যু হয়েছে। সঠিক বিচার চাই আমরা।
এই বিষয়ে অর্থপেডিক্স বিশেষজ্ঞ ডাঃ ফজলে রাব্বি বলেন, ঐ রোগীর পায়ের গোড়ালি ভাঙছিলো। অপারেশন সাকসেসফুল করা হয়। অপারেশনের পর সে সুস্থও ছিলো এবং আমি কথাও বলেছি অনেকবার। অপারেশন শেষ হওয়ার বহু পরে হঠাৎ বুকে ব্যথা শুরু হয় ঐ রোগীর। এরপর তাকে অক্সিজেনও দেয়া হয়। মূলত সে হার্ট আ্যাটাক করেছে। এই কারণে মৃত্যু হয়েছে। চিকিৎসায় কোনো গাফলতি হয়নি।