বরিশালে যুবককে বলাৎকারের অভিযোগে আইনজীবী গ্রেপ্তার

বরিশালে এক যুবকরে সাথে অস্বাভাবিক যৌন সম্পর্ক স্থাপন করায় এক আইনজীবীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রবিবার শারীরিক পরীক্ষার জন্য ঐ যুবককে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন এবং গ্রেপ্তারকৃত আইনজীবীকে আদালত প্রেরণ করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত আইনজীবীর নাম সামসুল হক। তিনি বরিশাল জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য। এই ঘটনাকে ন্যাক্কারজনক বলে তার সদস্য পদ বাতিলের দাবী জানিয়েছেন সুধিজনরা। পরিবারের স্বজনরা বলছে, ষড়যন্ত্র করে এই মামলা দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, জমি বিক্রির জন্য বেশ কয়েকমাস আগে ঐ যুবক আইনজীবী সামসুল হকের সাথে যোগাযোগ করেছিল। এরপর নানান কৌশলে সামসুল হক ঐ যুবকের সাথে সম্পর্ক তৈরী করে গত ৮ মাস যাবৎ অস্বাভাবিক যৌন সম্পর্ক (বলৎকার) স্থাপন করে। এই ঘটনায় শনিবার ঐ যুবক কোতয়ালী মডেল থানায় বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করলে পুলিশ আইনজীবী সামসুল হককে গ্রেপ্তার করে।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বরিশাল কোতোয়ালী মডেল থানার এসআই ফজলুল হক জানিয়েছেন, ভিকটিমকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য মেডিকেলে এবং আসামীকে আদালতে প্রেরন করা হয়েছে।
বরিশাল কোতোয়ালী থানার অফিসার ইনচার্র্জ (ওসি) নুরুল ইসলাম জানান, ঐ যুবকের আচরন তৃতীয় লিঙ্গের মতো হলেও সে নিজেকে সাধারন বলে দাবী করে, তবে সে তৃতীয় লিঙ্গের মানুষের সাথে চলাচল করে বলে জানিয়েছে।
অপরদিকে সুধিজনরা এই ঘটনার ধিক্কার জানিয়ে দ্রুত তার সদস্যপদ বাতিলের দাবী জানিয়েছেন।
তবে এটি ষড়যন্ত্রমূলক হতে পারে বলে দাবী করে আইনজীবী সমিতির সভাপতি আফজালুল করিম বলেন, যদি তদন্তে প্রমানতি হয় তাহলে এটি নিন্দনীয়, তবে এটা তার ব্যাক্তিগত ব্যাপার এর দায়ভার সংগঠন নেবে না বা তার সদস্যপদ যাবে না।