বরিশালে সেফা ডায়াগনস্টিকে ডাঃ আরিফ হত্যাকান্ডের সময় আটকের পর ছেড়ে দেওয়া কর্মচারীকে পুনরায় আটকের নাটক ॥ ৫৪ ধারায় চালান

বরিশাল টুডে ॥ বরিশাল নগরীর সাগরদীর বহুল আলোচিত সেফা ডায়গনস্টিক ল্যাবে কর্মরত অবস্থায় ডা. আরিফুর রহমান নামের এক চিকিৎসক খুন হওয়ার পর আটককৃত কর্মচারী মিরাজ ও বাবুকে ছেড়ে দেওয়া হলেও পুনরায় তাদের আটক করে ৫৪ ধারায় আদালতে চালান দিয়েছে পুলিশ। এ আটককে আন্দোলনরত চিকিৎসকরা দেখছেন নাটক হিসেবে।

চিকিৎসক নেতাদের ৭ দিন আল্টিমেটামের পর সোমবার রাতে নগরীর সাগরদী ব্রীজ সংলগ্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে এ দু কর্মচারীকে গ্রেফতার করা হলেও তাদের ৫৪ ধারায় চালান দেয়া হয়। হত্যাকান্ডের ১১ দিন পরও মঙ্গলবার পর্যন্ত থানায় কোন মামলা হয়নি। পরিবারের পক্ষ থেকে কোন মামলা না করায় পুলিশ বাদী হয়ে করা জিডিটিও মামলায় রূপান্তর করা হয়নি।

উল্লেখ্য ২১ জুন ডাঃ আরিফুর রহমানকে সেফা ড়ায়গনিস্টিক ল্যাবে কর্মরত অবস্থায় পিটিয়ে হত্যা করা হলেও ডায়গনিস্টিক সেন্টারের মালিকপক্ষ ও পুলিশ এটিকে হার্ট এ্যাটাক বলে চালিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। এমনকি পুলিশ এ সময় মিরাজ ও বাবু নামের ২ কর্মচারীকে আটক করলেও রহস্যজনক কারনে তাদের ছেড়ে দেয়। তবে হত্যাকারীদের গ্রেফতারে  আন্দোলনরত চিকিৎসকদের ৭ দিনের আল্টিমেটাম দেয়ার পর সোমবার রাতে পুলিশ উল্লেখিত দু জনকে গ্রেফতার করে।