বরিশাল নগরীতে ঈদুল আজহায় পশু কোরবানির জন্য ১৪২টি স্থান নির্ধারণ

বরিশাল সিটি করপোরেশনের পক্ষথেকে ঈদুর আজহা উপলক্ষে নগরীতে পশু কোরবানির জন্য ১৪২টি স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। এসব স্থানে পশু কোরবানি করার জন্য সিটি করপোরেশন থেকে নগরবাসীকে আহ্বান জানানো হয়েছে। নির্দিষ্ট স্থানের বাইরে কেউ পশু কোরবানি করলে ব্যক্তি উদ্যোগে সেসব বর্জ্য অপসারণ করতে হবে। বরিশাল সিটি করপোরেশন সূত্র জানান, নগরীর পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য এবং কোরবানির পর যাতে সুষ্ঠুভাবে বর্জ্য অপসারণ করা যায়, এ জন্য এসব স্থান নির্দিষ্ট করে দেওয়া হয়েছে। শৃঙ্খলার স্বার্থে নির্ধারিত স্থানের বাইরে কেউ পশু কোরবানি দিলে সে ক্ষেত্রে ব্যক্তিগত উদ্যোগেই বর্জ্য অপসারণ করতে হবে। আর কোরবানির দিন রাত আটটার মধ্যে বর্জ্য অপসারণ করে নগরীকে পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন করা হবে। আর এসব বর্জ্য অপসারণ ও পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতার কাজে বরিশাল সিটি করপোরেশনের ৯০০ শ্রমিক নিয়োজিত থাকবেন। সূত্র আরও জানান, নগরীর ৩০টি ওয়ার্ডে ওয়ার্ডভিত্তিক পশু কোরবানির জন্য এসব স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। নির্ধারিত স্থানে পশু কোরবানির ক্ষেত্রে সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণ ও নির্ধারিত স্থানগুলো পরিস্কার করতে পর্যাপ্ত পরিমাণে বস্তা ও ব্লিচিং পাউডার সরবরাহ করা হয়েছে। সার্বিক কার্যক্রম তত্ত্বাবধানের দায়িত্বে থাকা সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্নতা বিভাগের প্রধান ও ভেটেরিনারি সার্জন রবিউর ইসলাম বলেন, কোরবানির বর্জ্য অপসারণের স্থান নির্দিষ্ট করার পাশাপাশি এসব স্থান থেকে যাতে দ্রুত সময়ের মধ্যে বর্জ্য অপসারণ করা যায়, সে ব্যপারে সার্বিক প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।