বরিশাল বিভাগ সেরা ইউএনও বোরহানউদ্দিনের মো. আ. কুদদূস

মনিরুজ্জামান,ভোলা প্রতিনিধি ॥
বরিশাল বিভাগের শ্রেষ্ঠ উপজেলা নির্বাহি অফিসার নির্বাচিত হলেন ভোলার বোরহানউদ্দিনের সুদক্ষ ইউএনও মোঃ আঃ কুদদূস। বোরহানউদ্দিন উপজেলায় প্রাথমিক শিক্ষার গুনগত মান উন্নয়নে অসামান্য অবদান রাখায় বরিশাল বিভাগীয় নির্বাচন কমিটি বিভাগের শ্রেষ্ঠ উপজেলা নির্বাহি অফিসার হিসাবে তাকে নির্বাচিত করেন। মঙ্গলবার উপজেলা নির্বাহী অফিসারের অফিস তথ্যটি নিশ্চিত করেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই সংবাদ ছড়িয়ে পড়ার পর ইউএনও’র অফিসিয়াল ফেইজবুক পেজ এ বইছে অভিনন্দন বার্তার ঝড় ।কেহ মুঠো ফোন এর মাধ্যমে কেহ আবার তার দপ্তরে এসে অভিনন্দন ও কুশল বিনিময় করছেন।
জানা যায়, ২০১৬ সালের ২৫ এপ্রিল বোরহানউদ্দিন উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা হিসাবে যোগদান করেন মো: আ: কুদদূস।২৭তম বিসিএস’র চৌকস এ কর্মকর্তা যোগদানের পর থেকে উপজেলার পিছিয়ে পড়া শিক্ষা, সাংস্কৃতি, ক্রীড়া অঙ্গনসহ সব ক্ষেত্রে আমূল পরির্তন আনয়নে অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন তিনি।দিন কিংবা রাতে অভিযান চালিয়ে বাল্য বিবাহ ৭৩ ভাগ থেকে শূন্যের কোঠায় আনেন। উপজেলাকে আধুনিক মানে গড়ে তোলার লক্ষ্যে সর্বক্ষেত্রে কাজ করে যাচ্ছেন এ সুদক্ষ কর্মকর্তা। প্রাথমিক, মাধ্যমিক, মাদ্রাসা, কলেজ প্রতিষ্ঠান গুলোতে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদেরকে উপস্থিতি নিশ্চিত করণসহ শিক্ষার মান উন্নয়নে দিন রাত কাজ করে যাচ্ছেন।চালু করেন মিড-ডে-মিল।যার কারনে ঝড়ে পড়ার হার হ্রাস,শিক্ষক-শিক্ষার্থীর উপস্থিতি বৃদ্ধি পায়। একটু সময় পেলেই ক্লাস নেওয়ার জন্য ছুটে যান বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে।শিক্ষক হিসাবে তার ক্লাস খুবই সহজবোধ্য ও আনন্দদায়ক এমন বক্তব্য শিক্ষার্থী শিহাব, তামিম, শারমিন হাসান, নুসরাত জাহান সাথী সিয়াম, আলাউদ্দিন ঈশা,আয়েশা, ও প্রাপ্তির।কয়েকজন শিক্ষক জানান,ইউএনও স্যারের কাছ থেকে আমরা নতুন নতুন অনেক কৌশল শিখছি।যার মাধ্যমে ক্লাসে শিক্ষার্থীদের মনোযোগ বাড়ানো ও পাঠকে সহজবোধ্য করতে পাড়ছি তিনি উপজেলাবাসীর চিত্ত বিনোদনের জন্য তেতুঁলিয়া নদীর তীরে গড়ে তোলেন নান্দনিক ইকো পার্ক। এ ছাড়া ১৪ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মরনে বোরহানউদ্দিন উপজেলায় ১ মিনিটে ১ লাখ বৃক্ষ রোপন করে মিডিয়া অঙ্গনসহ সর্বক্ষেত্রে বেশ আলোড়ন সৃষ্ঠি করেন।বোরহানউ্িদ্দন উন্নয়ন ফোরামের আহবায়ক ও য্গ্নু আহবায়ক সাংবাদিক শিমুল চৌধুরী ও মনিরুজ্জামান বলেন,এটা তার সততা,মেধা,মননশীলতা ও পরিশ্রমের পুরুস্কার।অভিনন্দন তাকে।পক্ষিয়া ইউনিয়নের গৃহিনী আয়েশা আকতার বলেন,ইউএনওর সুবিচারের কারনে আমার মেয়েটা কলেজে যাতায়াত করতে পারে।হে যেন হারা জীবন আমাগো কাছে থাকে।
বিভাগে সেরা ইউএনও নির্বাচিত হওয়ায় জেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. হোসেন শিক্ষক নেতা মাহবুবুর রহমান,আব্দুর রহমান নান্নু,আনোয়ার হোসেন প্রতিক্রিয়ায় জানান, প্রাথমিক শিক্ষাক্ষেত্রে তার অসামান্য অবদানের এটা সেরা স্বীকৃতি যা তার পাওনা ছিলো। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি বশির আহমেদ,প্রধান শিক্ষক মোস্তফা কামাল, আব্দুল মন্নান কাজী বলেন, শিক্ষা সেক্টরেইউএনও স্যার কখন ছিলেন প্রশাসক,কখন ও অভিভাবক আবার কখনও শিক্ষক।তার শ্রমে শিক্ষা ক্ষেত্রে আজ আমুল পরিবর্তন হচ্ছে। যা ইতিপূর্বে দেখা যায়নি।তাই সর্বক্ষেত্রেই তিনি সেরা হবার দাবিদার। উপজেলা জমিয়াতুল মোর্দারেছিন সভাপতি ও বোরহানউদ্দিন কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ এবি আহমদ উল্লাহ আনছারী ,উপাধ্যাক্ষ আবুল হাসান মোঃওয়ালিউল্লাহ তাকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন ইউএনও উপজেলায় যোগ দেয়ার পর থেকে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান্্ে তার প্রতিনিয়ত পরিদর্শনে শিক্ষকদের আগমন-প্রস্থানের বিষয়টি নিশ্চিত হয়।শিক্ষকদের প্রতিষ্ঠানে রান্না করে খাওয়ার নজির রয়েছে। যার কারনে সাধারণ ও মাদ্রাসা শিক্ষার পাঠদানে সর্বোচ্চ গতি পেয়েছে। ইউএনওকে অভিনন্দন জানিয়ে বোরহানউদ্দিন পৌরসভার মেয়র মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, শিক্ষা, ক্রিড়া, সংস্কৃতি, বাল্য বিবাহ রোধ, মৎস্য সম্পদ রক্ষা, বৃক্ষরোপন, পর্যটন সহ প্রতিটি ক্ষেত্রে বর্তমান ইউএনও বৈপ্লবিক পরিবর্তন এনেছেন। বিভাগে সেরার পর জাতীয় পর্যায়েও ইউএনও সেরা হবেন বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
ভোলা জেলা প্রশাসক মোহাং সেলিমউদ্দিন বলেন, এটা তার ভালো কাজের মূল্যায়ন। এ স্বীকৃতি তার কাজের গতি আরো বাড়িয়ে দেবে। এ ব্যাপারে ইউএনও মো. আ. কুদ্দূস জানান, স্থানীয় সংসদ সদস্য আলী আজম মুকুল, জেলা প্রশাসক, জনপ্রতিনিধি, উপজেলা প্রশাসনের সকল অঙ্গের সহযোগীতার ফলে তিনি সকল কাজ নির্বিঘেœ করতে পারায় সেরা হওয়া সম্ভব হয়েছে। কাজের স্বীকৃতি অবশ্যই আনন্দের সেসাথে দ্বায়িত্ববোধও বাড়িয়ে দিয়েছে।
ভোলা -২ আসনের তরুন সংসদ সদস্য তাকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন,বোরহানউদ্দিনের ইউএনও সৎ,দক্ষ, পরিশ্রমী ও সৃজনশীল।