সংক্রামন তুলনামূলক কম হওয়ায় এলাকাগুলোতে নির্ধারিত সময়ে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে— প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা

বরিশাল সহ যেসব এলাকায় করোনা সংক্রামন কম সে রকমের ২০৮টি স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের নির্বাচন আগামী ২১ জুন নির্ধারিত সময়ে অনুষ্ঠিত হবে। তবে করোনা সংক্রামন বেশী হওয়ায় স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের পরামর্শে খুলনা অঞ্চলের ১৬৩টি স্থানীয় সরকার নির্বাচন স্থগিত রয়েছে। বরিশালে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা কথাগুলো বলেছেন। করোনার মধ্যেও নির্বাচন অনুষ্ঠানে সরকারী কর্মকর্তারা পিছ পা না যাওয়ায় তাদের ধন্যবাদ জানান সিইসি।
বরিশালে পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সাথে আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিইসি এ কথাগুলো বলেন। বরিশাল জেলা প্রশাসন ও সিনিয়র জেলা নির্বাচন অফিস এর আয়োজনে শনিবার বেলা ১১টায় সার্কিট হাউজের ধানসিড়ি সম্মেলন কক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। বরিশাল জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার এর সভাপতিত্বে সভায় তিনি আরও বলেন, করোনার কারনে এর আগে একদফা নির্বাচন পেছানো হলেও সংক্রামন তুলনামূলক কম হওয়ায় এলাকাগুলোতে বৃষ্টির মধ্যে নির্বাচন চালিয়ে যেতে হবে। নির্বাচন যেন নিরপেক্ষ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ন হয় সে ব্যাপারে প্রশাসন ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশ দেন তিনি। প্রর্থীদের আচরন বিধি মেনে চলার জন্য আহবান জানান সিইসি। বরিশালের নদী বেস্টিত ৩টি উপজেলা হিজলা, মুলাদী ও মেহেন্দিগঞ্জে প্রয়োজনীয় সংখ্যক কোস্টগার্ড মোতায়েনের নির্দেশ দেন তিনি।
সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার মো. সাইফুল হাসান বাদল, মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. শাহাবুদ্দিন খান, রেঞ্জ ডিআইজি এস এম আক্তারুজ্জামান, নির্বাচন কমিশনার সচিবালয়ের যুগ্ম সচিব ফরহাদ আহাম্মদ খান, বরিশাল অঞ্চলের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আলাউদ্দীন প্রমুখ।
সভায় বরিশাল বিভাগের নির্বাচন কর্মকর্তা, আইন শৃঙ্খলা বাহিনী এবং প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা অংশগ্রহন করেন।