সাবেক তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডাঃ মুরাদ হাসানের বিরুদ্ধে বরিশালে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

সাবেক তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডাঃ মুরাদ হাসানের বিরুদ্দে বরিশালের বিজ্ঞ সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতে মামলা হয়েছে। জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের বরিশাল সেক্রেটারী মো. আবুল কালাম আজাদ বাদী হয়ে সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে আদালতে মামলা দায়ের করেন। আদালতের বিচারক গোলাম ফারুক মামলাটি আমলে নিয়েছেন তবে তাৎক্ষনিক কোনো আদেশ দেননি বলে মামলার বাদী জানিয়েছেন। মামলার বাদী আরও জানান, আদালত তাদের জবানবন্দি নিয়েছেন এবং আদালত চলমান রয়েছে যে কোনো সময় আদেশ দিতে পারেন। এ তথ্যের সত্যতা স্বীকার করেছেন সাইবার ট্রাইব্যুনালের পাবলিক প্রসিকিউটর এ্যাড. ইশতাক আহমেদ রুবেল। মামলায় ভার্চুয়াল টকশো’র উপস্থাপক মুহাম্মদ মহিউদ্দিন হেলাল নাহিদকেও (নাহিদ হেলাল) আসামী করা হয়েছে। আদালতে মামলার বাদী সহ স্বাক্ষী হিসেবে বিএনপি নেতা অ্যাড. আলী হায়দার বাবুল, অ্যাড. মহসিন মন্টু, অ্যাড. এনায়েত হোসেন বাচ্চু, অ্যাড. আজাদ হোসাইন, অ্যাড. হুমায়ুন কবির মাসুদ, অ্যাড. আবুল কালাম আজাদ, অ্যাড. হারুন অর রশিদ সহ জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। মামলায় বাদী আবুল কালাম আজাদ উল্লেখ করেন, মুহাম্মদ মহিউদ্দিন হেলালের ভার্চুয়াল টকশোতে অংশ নিয়ে ডাঃ মুরাদ হাসান বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের কন্যা জাইমা রহমান সম্পর্কে অশ্লীল ও শিষ্টাচার বহির্ভূত বক্তব্য দিয়েছেন। সে সময়ে তিনি আরও সমালোচনা করে বক্তব্য দেন।