হরতালে মহানগর ও জেলা বিএনপি’র মিছিলে পুলিশের বাঁধা ॥ ককটেল বিস্ফোরন ॥ যানবাহন ভাংচুর

বরিশাল টু-ডে ॥ ৩৬ ঘন্টার হরতাল শুরুতেই ভোরে বরিশাল নগরীর ৩টি পয়েন্টে টায়ার জ্বালিয়ে এবং ককটেলের বিস্ফোরন ঘটিয়ে বিক্ষোভ করে ইসলামী ছাত্রশিবির। ছাত্রদলের একটি গ্র“পও রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ এবং যানবাহন ভাংচুর করে। এছাড়া হরতালের সমর্থনে নগরীর সদর রোডে বের হওয়া মহানগর এবং জেলা বিএনপি’র পৃথক মিছিলে বাঁধা দেয় পুলিশ।
সকাল ৬টায় নগরীর নাজিরের পোল থেকে মহানগর বিএনপি’র সভাপতি অ্যাডভোকেট মজিবর রহমান সরোয়ার এমপি’র নেতৃত্বে হরতালের সমর্থনে একটি মিছিল বের হয়। জেলখানা মোড় অতিক্রমকালে মিছিলে বাঁধা দেয় পুলিশ। পুলিশের বাঁধা অতিক্রম করে মিছিলটি সদর রোডের দলীয় কার্যালয় চত্ত্বরে গিয়ে সমাবেশ করে।
সকাল ৭টায় নগরীর বগুড়া রোড বাংলাদেশ ব্যাংক মোড় থেকে হরতালের সমর্থনে মিছিল বের করে জেলা (দক্ষিন) বিএনপি। পুলিশ মিছিলে বাঁধা দেয়ার চেস্টা করলেও তা অতিক্রম করে মিছিলটি সদর রোড হয়ে বিডিএস ক্লাব মোড়ে গিয়ে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়।
ভোরে বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের নগরীর সিএন্ডবি রোড থানা কাউন্সিল এলাকায় টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করে মহানগর ছাত্রশিবির। একই সময়ে বরিশাল-লাকুটিয়া-বাবুগঞ্জ সড়কের লাকুটিয়া মোবাইল টাওয়ার এলাকায়ও বিক্ষোভ করে তারা। ভোর সাড়ে ৫টায় বিএম কলেজের সামনে মসজিদ গেট সংলগ্ন রাস্তায় আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করে শিবির। এ সময় সেখানে ৩টি ককটেলের বিস্ফোরন হয়। শিবির ৩টি স্থানে ৫টি যানবাহন ভাংচুর করে। প্রায় একই সময়ে নগরীর সিএন্ডবি রোড টিটিসি এলাকায় টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ করে ছাত্রদলের একটি গ্রুপ।
যে কোন অপ্রীতিকর পরিস্থিতি মোকাবেলায় পুরো নগরী জুড়ে টহল দেয়া ছাড়াও বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ন স্থানে মোতায়েন করা হয়েছে বিপুল সংখ্যক পুলিশ।
হরতালে দুরপাল্লা ও অভ্যন্তরীন রুটের যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। নগরীর অভ্যন্তরে কিছু রিক্সা ও অটোরিক্সা চলাচল করলেও ভারী কোন যানবাহন চলাচল করছেনা। বন্ধ রয়েছে বরিশাল নগরীর বেশীরভাগ দোকানপাট